ঢাকা, মঙ্গলবার 7 August 2018, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৪ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

পাইকগাছায় বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে হাঁড়িয়া খাসমহল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়

খুলনা অফিস : খুলনার পাইকগাছায় সামান্য বৃষ্টিতে তলিয়ে যাওয়া বিদ্যালয়ের নাম হাঁড়িয়া খাসমহল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। ১৯৫২ সালে উপজেলার লতা ইউনিয়নে বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয়। বিল অঞ্চলে অবস্থিত বিদ্যালয়টিতে শচিয়ারবন্ধ, হাঁড়িয়া, শংকরদানা, তেঁতুলতলা ও আঁধারমানিক গ্রাম থেকে ছেলে-মেয়েরা এ বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করতে আসে। চলতি বছর বিদ্যালয়টিতে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১২০জন। প্রধান শিক্ষকসহ ৩ জন শিক্ষক দায়িত্ব পালন করছেন। নিম্নাঞ্চল হিসেবে এলাকায় শিক্ষার গুণগত মান যথেষ্ঠ ভালো বলে বিদ্যালয়ের সভাপতি সুশেন ম-লসহ অভিভাবকরা জানিয়েছেন। গত ১৫/২০ দিনের বৃষ্টিতে বিদ্যালয়ের আশপাশ তলিয়ে গেছে। চারিপাশে চিংড়ি ঘের ও একমাত্র যাতায়াতের জন্য সড়কটি নিচু হওয়ায় পানি নিস্কাশনের কোন ব্যবস্থা নেই। ফলে দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়টিতে ছাত্র-ছাত্রীদের উপস্থিতি একেবারেই কম। বিদ্যালয়টি সাইক্লোন শেল্টার হিসেবে নির্মিত হওয়ায় এলাকার ছাত্র-ছাত্রীরা লেখাপড়ার পরিবেশ পেলেও বর্ষা মওসুমে পরিবেশ সম্পূর্ণ নষ্ট হয়ে গেছে। চিংড়ি চাষীদের কারণে পানি নিস্কাশন না হওয়ায় শিক্ষার পরিবেশ কয়েক বছর ধরে এভাবেই নষ্ট হচ্ছে। দ্রুত চলাচলের রাস্তাটি উচু ও পানি নিস্কাশনের জন্য কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকরা।
এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বঙ্কিম চন্দ্র ঘোষ জানান, বর্ষা মওসুমে চিংড়ি চাষীরা পানি নিস্কাশন না করায় বিদ্যালয়ের পরিবেশ মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ