ঢাকা, বুধবার 8 August 2018, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৫ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কাশ্মীরে স্বাধীনতাকামীদের সঙ্গে সংঘর্ষে মেজরসহ নিহত ৬

 

৭ আগস্ট, এনডিটিভি, দ্য হিন্দুস্তান টাইমস, আনন্দবাজার : ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের উত্তরাঞ্চলে সশস্ত্র স্বাধীনতাকামীর সঙ্গে সংঘর্ষে সেনাবাহিনীর মেজরসহ ছয় জন নিহত হয়েছেন। এরমধ্যে চারজনই সেনাবাহিনীর সদস্য। পুলিশের দাবি, একটি সশস্ত্র স্বাধীনতাকামী গ্রুপ ভারতে প্রবেশের চেষ্টা করলে এই হামলা চালায় নিরাপত্তা বাহিনী। এতে নিহত হন দুই স্বাধীনতাকামী। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে এসব তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, কাশ্মীরের বান্দিপোর জেলারা গোভিন্দ নাল্লাহয় একটি সশস্ত্র স্বাধীনতাকামী গ্রুপ ও রাষ্ট্রীয় রাইফেল বাহিনীর একটি টহলবাহিনীর মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়। পৃথিবীর সবচেয়ে সামরিকায়িত অঞ্চলগুলোর একটি কাশ্মীর। জননিরাপত্তা আইনের নামে সেখানে ভারতীয় সেনাবাহিনী ধারাবাহিক আটক-গ্রেফতার অভিযান পরিচালনা করে। ব্রিটিশ মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের ২০১৫ সালের এক পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, ১৯৯১ সাল থেকে তখন পর্যন্ত এই আইনের আওতায় ৮ হাজার থেকে ২০ হাজারের মতো মানুষকে আটক করা হয়েছে। বিভিন্ন অভিযানে প্রাণহানির শিকার হয়েছেন আরও অনেকে।

গতকাল মঙ্গলবার ভারতীয় কর্মকর্তারা জানান, প্রাথমিকভাবে আমরা জানতে পেরেছি যে আটজনের একটি চক্র আমাদের দেশে ঢোকার চেষ্টা করছিলো। তারমধ্যে চারজন পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে পালিয়ে গেছে। তবে বিস্তারিত কিছু এখনও জানা যায়নি। এর আগে  রোববার দক্ষিণ কাশ্মীরের খুদওয়ানি এলাকার ওয়ানি মহল্লাতে নিরাপত্তা বাহিনী ও গেরিলাদের মধ্যে এ সংঘর্ষে তিন বিদ্রোহী নিহত হয়। এছাড়া গত সপ্তাহে কাশ্মীরের দক্ষিণাঞ্চলের কিলোরা গ্রামের এক অভিযানে ছয়জন নিহত হয়েছিলেন। এরমধ্যে একজন বেসামরিকও ছিলেন। গতকাল মঙ্গলবার ভোরে উত্তর কাশ্মীরের গুরেজ সেক্টরে এ ঘটনা ঘটে। ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়, স্থানীয় সময় ওইদিন ভোরে পাক নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর থেকে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করে স্বাধীনতাকামীরা। এ সময় গুলী করে ভারতের সেনা সদস্যরা। দু’পক্ষের গুলীবিনিময়ে কর্তব্যরত মেজর ও তিন সেনা সদস্য নিহত হয়। সেনাদের পাল্টা গুলীতে নিহত হয় দুই স্বাধীনতাকামী। অতিরিক্ত সেনা এবং নিরাপত্তাকর্মী এলাকায় পাঠানো হচ্ছে। তবে সেনা বাহিনীর পক্ষ থেকে সরকারি ভাবে এখনও কিছু জানানো হয়নি। কোন বিচ্ছিন্নবাদি গোষ্ঠী অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালিয়েছে, সেই বিষয়টিও স্পষ্ট নয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ