ঢাকা, বুধবার 8 August 2018, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৫ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

  শিমুলিয়া-কাঠালবাড়ী নৌ-রুটের পদ্মায় ফেরি ডুবির কবল থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেল ড্রাম ফেরি রানীক্ষেত 

 

 লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) সংবাদদাতা : মঙ্গলবার সকালে শিমুলিয়া ঘাট থেকে কাঠালবাড়ীর উদ্দেশে যাত্রী ও যানবাহন নিয়ে ছেড়ে যাওয়া লক্কর-ঝক্কর মার্কা ড্রাম ফেরী রানীক্ষেত চালকের দূরদর্শিতা ও বুদ্ধিমত্তার ফলে পদ্মায় ডুবে যাওয়ার হাত থেকে এ যাত্রায় রক্ষা পেল। বিআইডব্লিউটিসি সূত্রে জানা যায় ড্রাম ফেরী রানীক্ষেত ফেরীটি ৬টি বাস, ৬টি ট্রাক ও ১০টি ছোট গাড়ীসহ মোট ২২টি যানবাহন নিয়ে সকালে কাঠালবাড়ী ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়, এমন সময়ে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ফেরিটি পদ্মার মুখে ড্রেজিং চ্যানেলের কাছে আসলে উক্ত স্থানে পানি সল্পতা থাকায় প্রচন্ড বাতাসের কবলে ফেরিটি নদীতে থাকা বিআইডব্লিউটিএর মাকিং বয়ার সাথে ধাক্কা লেগে ফেরিটির তলা ফুটো হয়ে পানি উঠতে থাকে। এ সময়ে রানীক্ষেত ফেরিটিকে টেনে নেয়া আইটি-৯৫ এর মাস্টার আব্দুল হাই ও সেকেন্ট মাস্টার শাহিন তাৎক্ষণিকভাবে ফেরিটি চরে ঠেকিয়ে দিয়ে রশি ও কাতাসহ অন্যান্য বস্তু দিয়ে পানি আটকিয়ে ফেরিতে উঠা পানিগুলো পাম্প দিয়ে হেচে ফেলে। এ সময়ে ফেরিতে থাকা যাত্রীদের লঞ্চ ও ট্রলার দিয়ে উদ্বার করে কাঠালবাড়ী ঘাটে নামিয়ে দেয়া হয়। এ দিকে চ্যানেলের মুখটি আটকে থাকায় দুই ঘন্টা ফেরি চলাচল বন্ধ থাকে, পরে বিআইডব্লিউটিএর শৈবালসহ দুটি জাহাজ ফেরিটিকে যানবাহনসহ উদ্বার করে। এ ব্যাপারে মাওয়া নৌ-পুলিশ ফাড়ির পরিদর্শক মো: আরমান হোসেন জানান ফেরিটি এখন সম্পূর্ণ ঝুঁকি মুক্ত। ফেরিতে থাকা যাত্রীরা তাদের গন্তব্যে চলে গেছে এবং ঘাটে ফেরি চলাচলও স্বাভাবিক রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ