ঢাকা, বুধবার 8 August 2018, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৫ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নির্বাচনে অনিয়ম না হওয়ার নিশ্চয়তা দেয়া যাবে না -সিইসি

স্টাফ রিপোর্টার: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, পাবলিক নির্বাচনগুলোতে অনিয়ম হবে না সে নিশ্চয়তা দেয়া যায় না। বড় বড় পাবলিক নির্বাচনে কিছু কিছু অনিয়ম হয়ে থাকে। আমরা সেগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিয়ে থাকি। বরিশালে বেশি অনিয়ম হয়েছে সেখানে আমরা বাড়তি ব্যবস্থা নিয়েছি।
গতকাল বুধবার রাজধানীর নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ভবনে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।
সম্প্রতি পাঁচ সিটির নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে এমন পরিস্থিতিতে জাতীয় নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ আছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, এ ধরনের নির্বাচনে অনিয়ম হয়েই থাকে। কিন্তু সিটি নির্বাচন খুব বেশি সুখকর ছিল না- এমনটা মানতে রাজি নই। বড় বড় পাবলিক নির্বাচনে কিছু কিছু অনিয়ম হয়ে থাকে আমরা সেগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিয়ে থাকি। বরিশালে বেশি অনিয়ম হয়েছে সেখানে আমরা বাড়তি ব্যবস্থা নিয়েছি। নির্বাচনে অনিয়ম হলে যেভাবে নিয়ন্ত্রণ করা দরকার সেভাবে আমরা নিয়ন্ত্রণ করবো।
ইসির ওপর জাতির আস্থা নেই ড. কামাল হোসেনের এমন মন্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, ড. কামাল হোসেন কীভাবে দেখেন তা আমি জানি না। কোন জাতির কী পরিসংখ্যান তার কাছে আছে আমার জানা নেই। একটা কথা বলতে হলে পরিসংখ্যান দিতে হবে। জাতি কি তাকে বলেছে নাকি- আমরা নির্বাচন কমিশনের ওপর আস্থা রাখতে পারছি না।
সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি বিষয়ে তিনি বলেন, জাতীয় সংসদের প্রস্তুতি আগে থেকেই ছিল। অক্টোবরে তফসিল ঘোষণা হবে। ডিসেম্বরের শেষের দিকে অথবা জানুয়ারির প্রথম দিকে সংসদ নির্বাচন হবে। নিয়ম অনুযায়ী জানুয়ারির ২৮ তারিখের মধ্যে নির্বাচন করতে হবে। এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি, কমিশনের বৈঠকে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।
নির্বাচনের পরিবেশ পক্ষে আছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, এখন যে পরিস্থিতি রয়েছে এর সঙ্গে নির্বাচনের কোনো সম্পর্ক নেই। এটি ভিন্ন ইস্যু। আন্দোলনকারীরা নির্বাচন নিয়ে কোনো কথা বলেনি।
এর আগে প্রতিবন্ধী ভোটাররা নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অংশ নেয়ার সময় কী ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করবে সে বিষয়ে এক কর্মশালার উদ্বোধন করেন তিনি। এ আয়োজনে যৌথভাবে অংশ নিচ্ছে আন্তর্জাতিক সংস্থা আইএফইএস। প্রতিবন্ধীরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে গেলে কী কী সমস্যার সম্মুখীন হন, যারা দৃষ্টি প্রতিবন্ধী তাদের জন্য আলাদা ব্যালট পেপার ছাপানো যায় কিনা- যাতে করে তারা হাত দিয়ে প্রতীক বুঝতে পারেন এসব বিষয়ে ২০/২৫ জন প্রতিবন্ধীকে নিয়ে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ