ঢাকা, বুধবার 8 August 2018, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৫ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ইউএনও’র পরিদর্শন ॥ উপজেলা প্রকৌশলীকে প্রধান করে তদন্ত কমিটি গঠন

মোঃ আতিকুর রহমান, (ঝালকাঠি): ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলার আমুয়া শহীদ রাজা ডিগ্রি কলেজের নির্মাণাধীন ৩ তলা ভবনের নির্মাণাধীন ৩য় তলার দেয়াল বাতাসেই ধসে পড়ায় মঙ্গলবার স্থানীয় দৈনিক শতকষ্ঠসহ বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদটি প্রকাশ পায়। মঙ্গলবার দুপুরে কাঠালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আকন্দ মোহাম্মদ ফয়সাল উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি উপজেলার স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রকৌশলী আলমগীর কবীরকে প্রধান করে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে দেন।
কলেজের ইংরেজি প্রভাষক ও মানবাধিকার কর্মী অমরেশ রায় চৌধুরী জানান, রোববার সকাল সোয়া ১১ টার দিকে বাতাস শুরু হয়। কিছুক্ষণের মধ্যেই ধপাস করে একটি শব্দ হলে কয়েক ছাত্র ও ২ স্টাফ চিৎকার করে ছোটাছুটি করতে থাকে। আমি সহ অন্যান্য শিক্ষকরা দৌড়ে ঘটনাস্থলে এসে দেখি নির্মাণাধীন ভবনের ৩য় তলার দেয়াল ধসে পড়েছে। পাশে থাকা কলেজ অডিটরিয়ামটিও বিধ্বস্ত হয়েছে। ছাত্রদের বরাত দিয়ে তিনি জানান, পাশে থাকা কলেজ অডিটরিয়ামে ৩ জন ছাত্র ও ২ জন স্টাফ ছিলো। শব্দ পেয়েই তারা দৌড় দেয়। ইতিমধ্যে অডিটরিয়ামের ছাউনী বিধ্বস্ত হয়ে পড়ে। এঘটনায় ওই ৫ জন অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পায়। কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ আবুল বশার বাদশা জানান,  ঘটনার সময় আমি কলেজে ছিলাম না। তবে দুর্ঘটনার খবর সাথে সাথেই শুনেছি। নির্মাণাধীন ৩ তলা ভবনের ৩য় তলার দেয়াল ধসে পড়েছে। ঠিকাদাররা যথেচ্ছা কাজ করছে। শ্রেণি কক্ষ সংকটের কারণে অডিটরিয়ামেই ক্লাস পরিচালনা করতে হয়। এখানে যদি প্রাণহানির দুর্ঘটনা ঘটতো তাহলে এর সম্পুর্ণ দায়ভার আমাকেই নিতে হতো। অভিভাবকরা আমাকে বিন্দু মাত্রও ছাড় দিতো না।   কাঠালিয়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আকন্দ মোহাম্মদ ফয়সাল উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে মঙ্গলবার দুপুরে কলেজের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি।  কি কারণে ধসে পড়লো এর কারণ উদঘাটনের জন্য উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলীকে প্রধান করে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি ঘটন করে  দেয়া হয়েছে। তারা তদন্ত করে প্রতিবেদন দিলে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে পরবর্তী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ