ঢাকা, বৃহস্পতিবার 9 August 2018, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৬ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

গ্যাসের দাম বাড়লেও সহনীয় পর্যায়ে থাকবে -বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার : আজ ৯ আগস্ট, বৃহস্পতিবার। জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তা দিবস। ১৯৭৫ সালের ৯ আগস্ট বঙ্গবন্ধু বহুজাতিক কোম্পানি শেল ওয়েলের কাছ থেকে তিতাস, রশিদপুর, হবিগঞ্জ, বাখরাবাদ এবং কৈলাসটিলা গ্যাস ক্ষেত্র কিনে নেন। ওই সময়ে ৪ দশমিক ৫ মিলিয়ন পাউন্ডে গ্যাস ক্ষেত্রগুলো কিনে রাষ্ট্রীয় মালিকানা প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। এ উপলক্ষে প্রতিবছর এই দিনে সরকার জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তা দিবস পালন করে আসছে। দিবসটি উপলক্ষে ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে।
গতকাল বুধবার জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এ তথ্য জানিয়েছেন। প্রতিমন্ত্রী জানান, প্রতিবছরের মতো দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপনের লক্ষ্যে এ বছরও বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে।
জ্বালানি সেক্টরের সাম্প্রতিক অর্জন, অগ্রগতি ও অন্যান্য বিষয়ে জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় ক্রোড়পত্র প্রকাশ করা হবে। যেখানে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সচিবের বাণী প্রকাশ করা হবে। বিপিসি ও পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যানদের নিবন্ধন প্রকাশ করা হবে।
একইসঙ্গে শাহবাগ ও ফার্মগেটের এলইডি স্ক্রিনে জ্বালানি খাতে সরকারের সাফল্য নিয়ে নির্মিত তথ্যচিত্র ২০ সেকেন্ড করে দিনে ১৮০ বার প্রচার করা হবে। জ্বালানি ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মোবাইল ফোনে এসএমএস দেওয়া হবে। এছাড়া জ্বালানি সেক্টরের উন্নয়নে গৃহীত কার্যক্রম ও ভবিষ্যত পরিকল্পনা সম্পর্কে আজ দুপুর সাড়ে ১২টায় পেট্রোবাংলার ড. হাবিবুর রহমান অডিটোরিয়ামে সেমিনার ও আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।
জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের অধীন দফতর ও কোম্পানিগুলোকে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে সম্পৃক্ত করে জেলা ও বিভাগ পর্যায়ে দিবস উদযাপন করা হবে। এছাড়া জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তা দিবস-২০১৮ যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের লক্ষ্যে গৃহীত কার্যক্রম নিয়ে পেট্রোবাংলা কর্তৃক একটি স্মরণিকা প্রকাশ করা হবে। নির্ধারিত কয়েকটি সড়কদ্বীপ (সার্ক ফোয়ারা, কদম ফোয়ারা) সজ্জিত করা হবে।
জাতীয় নিরাপত্তা দিবস-২০১৮ উদযাপন উপলক্ষে পেট্রোবাংলা Oil and gas exploration: Opportunity in the offshoure Areas of Bangladesh, পেট্রোবাংলা করপোরেশন Oil pipeline Network এবং ভূতাত্তিক জরিপ অধিদফতর Coal: Primary Source of Energy বাড়ানোর দায়িত্বে আছে। তবে, আমার আশা দাম এমনভাবে বাড়ানো হবে যাতে চাপ সৃষ্টি না হয়।
মন্ত্রী বলেন, এ মাসের মধ্যেই গ্যাসের জাতীয় গ্রিডে এলএনজি সরবরাহ শুরু হবে। এর ফলে বছর শেষে সারাদেশে কোনো গ্যাস সংকট থাকবে না বলে জানান বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।
মন্ত্রী বলেন, আমরা চেষ্টা করছি নিরবচ্ছিন্ন গ্যাস দিতে। আমাদের গ্যাসও ফুরিয়ে আসছে। আগামিতে এর চাহিদা ব্যাপক হবে। সাগরের চারটা ব্লকে ডায়ইও (কোরিয়ান একটি কোম্পানি) কাজ করছে। তারা মিয়ানমারেও কাজ করে।
গভীর সমুদ্র থেকে স্থলভাগে গ্যাস আনতে ৮ থেকে ৯ বছর সময় লাগতে পারে। এজন্য আমরা এলএনজিতে নজর দিয়েছি। তাছাড়া, গত তিন মাস ধরে পাইপ লাইনে এলএনজি সরবরাহেরও চেষ্টা করছি। চলতি মাসের ৯ আগস্টের পর নতুন এলএনজি সঞ্চালন শুরু করা হবে বলে জানান জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী।
এলপিজি নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এখন পাইপলাইন ও এলপিজি গ্রাহকের পরিমাণ ৭০ লাখের বেশি। আমরা গত দেড় বছর ধরে চেষ্টা করছি এলপিজির দাম কিভাবে নির্ধারন করা যায়। আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে সাশ্রয়ী দামে কীভাবে সরবরাহ দেয়া যায় সে চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানান বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ