ঢাকা, বৃহস্পতিবার 9 August 2018, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৬ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বিশেষ ট্রাফিক সপ্তাহের চতুর্থদিনে সারাদেশে ১৮ হাজার ৩২২ মামলা

স্টাফ রিপোর্টার : নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে শুরু হওয়া বিশেষ ট্রাফিক সপ্তাহের চতুর্থ দিন গতকাল বুধবার সারাদেশে ১৮ হাজার ৩২২টি যানবাহন ও সাত হাজার ৯ জন চালকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। জরিমানা করা হয়েছে ৬০ লাখ পাঁচ হাজার ৫৫৩ টাকা। আটক করা হয়েছে ৫০০টি যানবাহন। গত রোববার থেকে শুরু হয়েছে বিশেষ ট্রাফিক সপ্তাহ। চলবে ১১ আগস্ট পর্যন্ত।
পুলিশ সদর দফতরের জনসংযোগ বিভাগের এআইজি মো. সোহেল রানা জানান, ট্রাফিক আইন বাস্তবায়ন ও জনসচেতনতা বাড়াতে যা যা করা দরকার তা নিশ্চিত করা হচ্ছে। তিনি জানান, গত চার দিনে ৭৬ হাজার ৮৭১টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। ২২ হাজার ৩৯৮ জন চালকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। সর্বমোট জরিমানা করা হয়েছে দুই কোটি ৫১ লাখ ৯৫ হাজার ৬৪৮ টাকা।
রাজশাহীতে তিন দিনে ১০২৪ মামলা
রাজশাহী অফিস : রাজশাহী মেট্রোপলিন পুলিশের উদ্যোগে ট্রাফিক সপ্তাহের প্রথম তিনদিনে রাজশাহী নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ট্রাফিক পুলিশ মোটরযান আইনে ১ হাজার ২৪টি মামলা দিয়েছে। এর মধ্যে প্রথম দিন ৩৭৫টি, দ্বিতীয় দিন ৩১৩টি ও তৃতীয় দিনে ৩৩৬টি মোটরযান আইনে মামলা হয়।
রাজশাহী নগরীর সাহেববাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাসনিম জাহান বলেন, সড়কে যানবাহনের লাইসেন্স, ফিটনেস, রোড পারমিট ইত্যাদি বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে। রাজশাহী মহানগর পুলিশের মুখপাত্র ও সিনিয়র সহকারী কমিশনার ইফতে খায়ের আলম বলেন, মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ট্রাফিক সপ্তাহের তৃতীয় দিনে মোটরযান আইনে ৩৩৬টি মামলা হয়। এসময় ১২টি মোটরসাইকল ও ১০টি সিএনজির কাগজপত্র না থাকায় জব্দ করা হয়। অন্যদিকে ট্রাফিক সপ্তাহে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে সাড়ে ১৬ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।
চারঘাটে ৫ ফার্মেসিকে জরিমানা : রাজশাহীর চারঘাট উপজেলায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে পাঁচ ফার্মেসিকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দা সাদিয়া নূরীয়া এ জরিমানা করেন। এ সময় রাজশাহী ওষুধ প্রশাসনের সহকারী পরিচালক মির্জা আনোয়ারুল বাসেদসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জানান, লাইসেন্সবিহীন, ভেজাল, মেয়াদ উত্তীর্ণ ও অনুমোদনহীন ওষুধ নির্ণয়, জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানোসহ সার্বিক বিষয় বিবেচনায় ওষুধ বাজার মনিটরিং করা হয়। এ সময় চারঘাট উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এলাকায় অভিযান চালিয়ে অনুমোদনহীন ওষুধ রাখায় পাঁচ ফার্মেসিকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পরে অনুমোদনহীন ওষুধ ধ্বংস করে এ ধরনের অপরাধ না করার জন্য সবাইকে সচেতন ও সতর্ক করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ