ঢাকা, বৃহস্পতিবার 9 August 2018, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৬ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সহপাঠী ও অভিভাবকদের বিক্ষোভ মিছিল

বড়াইগ্রাম (নাটোর) সংবাদদাতা : নাটোরের বড়াইগ্রামে দপ্তরী কাম নৈশপ্রহরীর বিরুদ্ধে ৪র্থ শ্রেণীর এক শিশু শিক্ষার্থীকে (১০) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় উপযুক্ত বিচারসহ অভিযুক্ত নৈশপ্রহরীর বহিষ্কারের দাবিতে শিশুটির সহপাঠী, অভিভাবক ও এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল করেছে। বুধবার সকালে উপজেলার জোনাইল ইউনিয়নের কুশমাইল-সংগ্রামপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয়রা জানান, বুধবার সকাল ৯টার দিকে অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য ঐ শিশুটি বিদ্যালয়ে আসে। এ সময় দপ্তরী কুশমাইল গ্রামের আব্দুল হালিমের ছেলে মনির হোসেন (৩২) তাকে বিদ্যালয়ের দোতলার কক্ষগুলো ঝাড়ু দিতে বলে। ঝাড়ু দেয়ার জন্য শিশুটি দোতলায় গেলে মনির হোসেন সেখানে গিয়ে পেছন দিক থেকে তাকে জাপটে ধরে। পরে শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়াসহ শিশুটিকে বিবস্ত্র করে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় সে কান্নাকাটি শুরু করলে অন্য কয়েকজন শিক্ষার্থী এগিয়ে আসায় মনির তাকে ছেড়ে দেয়। পরে স্থানীয়রা বিষয়টি জানতে পেরে এগিয়ে এলে লম্পট মনির হোসেন বিদ্যালয় থেকে পালিয়ে যায়। এদিকে, দুপুরে পরীক্ষা শেষে এলাকাবাসী, অভিভাবক ও শিশুটির সহপাঠীরা মনির হোসেনের বিচারের দাবীতে বিদ্যালয় আঙ্গিনাসহ এলাকায় ব্যাপক বিক্ষোভ মিছিল করেছে।  
এ ব্যাপারে বড়াইগ্রাম থানার ওসি (তদন্ত) সৈকত হাসান জানান, বিষয়টি শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
গৃহবধূর আত্মহত্যা : নাটোরের বড়াইগ্রামে পরকীয়া প্রেমের অভিযোগে মারপিট করে অশ্লীল ছবি তুলে রাখায় ক্ষোভে-দুঃখে শিপ্রা কস্তা (৩৩) নামে এক গৃহবধু গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিপ্রা উপজেলার জোনাইল ইউনিয়নের সরাবাড়িয়া গ্রামের ডোমেনিক রোজারিও’র স্ত্রী।
স্থানীয়রা জানান, গত ১৭ জুলাই রাতে স্বামীর অনুপস্থিতিতে শিপ্রা প্রতিবেশী মুদি দোকানদার শাহ আলমকে নিয়ে শোবার ঘরে অবস্থান করছেন এমন অভিযোগে একই গ্রামের আলম, সবুজ ও আবু হানিফ সেখানে যায়। এ সময় ডাকাডাকির পর দরজা খুলে দিলে শিপ্রা ও তার প্রেমিককে মারপিট করে দুজনের নগ্ন ছবি তোলে। বিষয়টি এলাকায় প্রচার হয়ে গেলে মান-সম্মান ক্ষুন্ন হওয়াসহ পারিবারিক অশান্তির এক পর্যায়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শিপ্রা নিজ ঘরের তীরের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। এ ঘটনায় নিহতের পিতা পিটার কস্তা বাদী হয়ে থানায় চারজনের নামে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন। বড়াইগ্রাম থানার উপ-পরিদর্শক আমিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, বুধবার নিহতের লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্তদের আটকের চেষ্টা চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ