ঢাকা, বৃহস্পতিবার 9 August 2018, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৬ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাজাপুরে অবহেলায় মরে যাচ্ছে শতশত গাছ নেই কোন তদারকি বন বিভাগের

রাজাপুর (ঝালকাঠি) সংবাদদাতা : ঝালকাঠির রাজাপুরে সড়ক ও সবুজ বেষ্টুনির গাছে অজ্ঞাত মড়ক লেগেছে, ফলে শত শত মূল্যবানের গাছ মরে যাচ্ছে। তবে নেই কোন তদারকি বন-বিভাগের এমনটাই অভিযোগ করেন রাজাপুর উপজেলার বড়ইয়া ও মঠবাড়ি ইউনিয়নের জন সাধারন। বিপুল পরিমান সরকারি অর্থে সবুজ বেষ্টুনির ও সড়কের এ গাছগুলো ১৫ বছর আগে রোপন করা হয়। পরিচর্যার অভাবে অজ্ঞাত রোগে গাছ গুলো মরে যাচ্ছে, সঠিক তদারকি হচ্ছে না বলে স্থানীয় জনসাধারন জানান। মূল্যবান আকাশমনি, শিশু, মেহগনি ও নিম গাছ শুধু পরিবেশের ভারসম্য রক্ষা করেনা, মানুষের উপকার ও  দেশের বনজ সম্পদ বৃদ্ধি করে। উদ্ভিদ বিশেষজ্ঞদের মতে নিম ও মেহগনি গাছ মানুষের বহু রোগ থেকে  করে। উপজেলার আব্দুল মালেক কলেজ অধ্যক্ষ সৈয়দ মোঃ বেলায়েত হোসেন জানান, “এভাবে প্রতি বছর গাছ গুলো মারা গেলে এক সময় শূন্য হয়ে পরবে ছায়া ঘেরা সবুজ বেষ্টুনি, পরিবেশের ভারসম্য হারাতে পারে। এছাড়া দেশের বনজ সম্পদ বিলুপ্ত হতে পারে। স্থানীয় জনগন সড়ক ও সবুজ বেষ্টুনির গাছগুলো মারা যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করার জন্য বন বিভাগের উর্ধতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। সড়ক ও জনপদের প্রকৌশলী মোঃ লুৎফর রহমান জানান, “গাছগুলো শুধু পরিবেশ রক্ষা করেনা সড়কও স্থায়ীভাবে বাঁচিয়ে রাখে। সড়কের দু’পাশের রোপনকৃত গাছগুলোর শিকড় সড়কের নীচ থেকে ছড়িয়ে সড়ককে শক্ত রাখে। প্রতি বছর সড়ক ও সবুজ বেষ্টুনির শত শত মূল্যবান গাছ মরে যাচ্ছে বন বিভাগের অবহেলার কারনে”। এ বিষয়ে উপজেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন জানান, “এ অঞ্চলের মাটি শিশু গাছের জন্য উপযুক্ত নয় যার কারনে একটু বড় হলেই মড়ক রোগে আক্রান্ত হয় আর আকাশমনিসহ অন্যান্য গাছগুলোর আমরা পরিচর্যা করে থাকি”।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ