ঢাকা, শুক্রবার 10 August 2018, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৭ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

লৌহজংয়ে হটাৎ করইে চুরি বৃদ্ধি॥ জনমনে আতঙ্ক

লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) সংবাদদাতা : গত এক সপ্তাহ যাবত লৌহজং উপজেলার বিভিন্ন স্থানে চোরদের দৌরাত্ম্য বৃদ্ধি পেয়েছে আর এতে করে এ উপজেলার জনসাধারণের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে । জানাযায়, ৮ আগস্ট বুধবার বিকাল আনুমানিক ৪ টার দিকে লৌহজংয়ের মাওয়া বাজারের গ্লোবাল ব্যাংক সংলগ্ন মিরহোসেনের তিন তলা বিলডিংয়ের ৩য় তলার ভাড়াটিয়া বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাটের ক্যাশিয়ার মো: নুর নবীর বাসার দরজার তালা ভেঙ্গে চোরের দল ভিতরে ডুকে নগদ ২০ হাজার টাকা ও একটি স্বর্ণের চেইন, কানেরদুল নিয়ে চোরেরা পালিয়ে যায় । নুর নবী জানায় তারপরিবারের সবাইকে গত তিনদিন পূর্বে দেশের বাড়িতে বেড়াতে পাঠানো হয় ।যার ফলে ৩ তলার তার বাসাটি তালা লাগানো ছিলো।পরে পাশের ভাড়াটিয়া দেখেন তার দরজার তালা ভাঙ্গা রয়েছে ।

এ দিকে বুধবার দিবাগত রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে একই ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের উওর মেদিনিমন্ডল গ্রামের মিনার সমজিদ সংলগ্ন সুজন হওলাদারের বাড়ির জানালা ভেঙ্গে চোর ভিতরে প্রবেশ করে নগদ ১২ হাজার টাকা ও স্বনের রুলি ও কানের দুল চুরি করে চোর পালিয়ে যায় । এ ব্যাপারে সুজন হাওলাদারের ছোট ভাই মিলন হাওলাদার জানায় শুধু আমাদের বাড়িতেই চুরি হয়নি সপ্তাহ খানেক পূর্বে আমাদের মসজিদের দান বাক্সও চুরি করে দান বাক্সের টাকা নিয়ে বাক্সটি ফেলে রেখে চোর পালিয়ে যায় । এর পূর্বে শনিবার ৪ আগস্ট হলদিয়া বাজারে অবস্থিত বিক্রমপুর প্রেস ক্লাবের নিচ তলার সিড়ির কোঠা থেকে পানি উঠানোর পাম্প(মটর)টি চুরি হয় ।এর পূর্বেও আরো দুবার প্রেস ক্লাবের মটরটি চুরি হয় । আগের চুরির ঘটনায় কোন অভিযোগ না করা হলেও ৪ আগস্টের চুরির ঘটনায় বিক্রমপুর প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয় । বুধবার দিনে ও রাতে পরপর দুই বাড়িতে চুরির ঘটনা সম্পর্কে লৌহজং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো:লিয়াকত আলীকে ফোন দেওয়া হলে তিনি বলেন এসব চুরির ব্যাপারে কেই কোন অভিযোগ করেনি ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ