ঢাকা, শুক্রবার 21 September 2018, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ১০ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

আমেরিকার বিরুদ্ধে প্রচণ্ড ক্ষোভ প্রকাশ করল উত্তর কোরিয়া

উত্তর কোরিয়ার দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র (ফাইল ছবি)

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:

উত্তর কোরিয়ার ওপর থেকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা তুলে না নেয়ায় ওয়াশিংটনের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে পিয়ংইয়ং।

উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আজ (শুক্রবার) বলেছে, দেশটি সদিচ্ছার প্রমাণ দিতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেয়া সত্ত্বেও মার্কিন সরকার ‘পুরনো অভিনয় লিপি’ অনুসরণ করে যাচ্ছে। এর ফলে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের যেকোনো প্রচেষ্টা ব্যর্থ হচ্ছে বলে ওই মন্ত্রণালয় উল্লেখ করেছে।

উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, দেশটি সদিচ্ছার নিদর্শন হিসেবে এরইমধ্যে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ করে দিয়েছে, ১৯৫০-এর দশকের কোরীয় যুদ্ধে নিহত মার্কিন সেনাদের দেহাবশেষ ফেরত দিয়েছে এবং একটি পরমাণু স্থাপনা ধ্বংস করেছে।  মন্ত্রণালয় আরো বলেছে, সাবেক মার্কিন প্রশাসনগুলো যে নীতি অনুসরণ করে ক্লান্ত ও ব্যর্থ হয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন সেই একই নীতি অনুসরণ করছে।

উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচি ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে দেশটির বিরুদ্ধে জাতিসংঘ এবং আমেরিকার পক্ষ থেকে বেশ কিছু কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপিত রয়েছে। ওয়াশিংটন দাবি করছে, নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের আগে উত্তর কোরিয়াকে তার সব পরমাণু অস্ত্র ধ্বংস করতে হবে।

সিঙ্গাপুরে জুন মাসে দুই শীর্ষ নেতার নজিরবিহীন সাক্ষাৎ

গত জুনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন সিঙ্গাপুরে এক নজিরবিহীন বৈঠকে কোরীয় উপদ্বীপকে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করতে সম্মত হন। কিন্তু উত্তর কোরিয়া কখনোই একথা ঘোষণা করেনি যে, দেশটি এককভাবে তার সব পরমাণু অস্ত্র ধ্বংস করবে। গত সপ্তাহে জাতিসংঘের ফাঁস হয়ে যাওয়া এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, পিয়ংইয়ং এখনো পরমাণু অস্ত্র তৈরির কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। গণমাধ্যমে এ খবর ছড়িয়ে পড়ার পর আমেরিকা উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা বলবৎ রাখার আহ্বান জানায়।

উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার জের ধরে অনেকে মনে করছেন, দেশটি আবার তার মার্কিন বিরোধী কঠোর অবস্থানে চলে যেতে পারে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ