ঢাকা, রোববার 12 August 2018, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৫, ২৯ জিলক্বদ ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

তিনটি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩ আহত ৮৭ জন

সংগ্রাম ডেস্ক: গতকাল তিনটি সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত এবং ৮৭ জন আহত হয়েছেন। এরমধ্যে গাইবান্ধা জেলার ধাপেরহাটে যাত্রীবাহী বাস উল্টে এক শিশুসহ ২ জন নিহত ও ১২ জন আহত, গাজীপুরে শ্রমিকবাহী বাস উল্টে সড়কের পাশে খাদে পড়ে এক জন নিহত ও অন্তত ২৫ জন আহত এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়ার রামরাইল বাজার এলাকায় যাত্রীবাহী বাস রাস্তর পাশে খাদে পড়ে  প্রায় ৫০ যাত্রী আহত হয়েছেন বলে আমাদের সংবাদদাতারা জানান।
গাইবান্ধা সংবাদদাতা : জেলার ধাপেরহাটে যাত্রীবাহী বাস উল্টে এক শিশুসহ ২ জন নিহত হয়েছে।  শুক্রবার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলো- ঢাকার মিরপুর-১১ এর বাসিন্দা রিপন মিয়ার মেয়ে চাঁদনী (১৪) ও বাসের হেলপার পঞ্চগড় জেলার কদরকান্দি এলাকার জাবেদ আলীর ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩৮)।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পঞ্চগড়গামী অপু পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসটিতে চালকের চোখে ঘুম আসে। এসময় যাত্রীরা বার বার বলার পরেও চালক বেপরোয়া ভাবে গাড়ি চালাতে থাকে। বাসটি ভোর সাড়ে ৬টার দিকে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের ধাপেরহাট এলাকার ভরসা কোল্ড স্টোরেজের নিকট পৌঁছালে চালক বাসটির নিয়ন্ত্রণ হারালে বাসটি রাস্তার পাশে খাদে উল্টে যায়। এসময় বাসযাত্রী চাদনী ও হেলপার সাইফুল ঘটনাস্থলে নিহত হয়। আহত হয় অন্তত ১২ জন যাত্রী।
খবর পেয়ে ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ, পীরগঞ্জ থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম এবং গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে এসে উদ্ধার কাজ চালায়। আহতদের পলাশবাড়ী ও পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
গাজীপুর সংবাদদাতাঃ গাজীপুরে শ্রমিকবাহী বাস উল্টে সড়কের পাশে খাদে পড়ে এক জন নিহত ও অপর অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছে। শনিবার ঢাকা-বাইপাস সড়কের পূবাইলের নারায়ণপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। হতাহতরা সকলেই পোশাক কারখানার শ্রমিক। নিহত মোঃ ওয়াসিম মিয়া (৩২)  ময়মনসিংহের ফুলপুর থানার সিঙ্গারচার এলাকার আব্দুর রশিদের ছেলে। আহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।
পূবাইল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক শফিকুল আলম জানান, গাজীপুরের টঙ্গীর বনমালা এলাকা থেকে শনিবার সকালে ৩০ থেকে ৩৫ জন শ্রমিক নিয়ে একটি যাত্রীবাহী বাস পূর্বাচল এলাকায় পূর্বাচল এ্যাপারেলস কারখানায় যাচ্ছিলো। যাওয়ার পথে পূবাইলের নারায়ণকুল এলাকায় এলে বাসের চালক নিয়ন্ত্রন হারিয়ে রাস্তর পাশের খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ওয়াসিম মিয়া নিহত ও কমপক্ষে ২৫ জন আহত হয়। স্থানীয়রা  আহতদের উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী টঙ্গীর সরকারি হাসপাতাল, টঙ্গী ক্যাথেলিস হাসপাতাল ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতের লাশ গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে।
কারখানা শ্রমিক আনিসুর রহমান ও শাকিল মিয়া জানান, তাদের ব্যবহৃত বাসটি অনেক পুরনো ও ভাঙ্গাচোরা ছিলো। ওই স্থানে গিয়ে চালক বাসের নিয়ন্ত্রন হারিয়ে পাশের খাদে পড়ে যায়।
সংবাদদাতা ব্রহ্মণবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়া রামরাইল বাজার এলাকায় একটি যাত্রীবাহী বাস রাস্তার পাশে খাদে পড়ে  প্রায় ৫০ যাত্রী আহত হয়েছেন। গতকাল শনিবার  ভোর চারটার দিকে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশের জানায়, গত বৃহস্পতিবার সকালে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলা থেকে ৬০ জন যাত্রী নিয়ে একটি বাস ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার খড়মপুর কল্লা শহীদ মাজারের উদ্দেশে রওনা হয়। মাজারের কাজকর্ম শেষ করে গতকাল ভোর চারটার দিকে বাসটি আবার রূপগঞ্জের উদ্দেশে রওনা হয়। উল্লিখিত স্থানে বাসটি পৌছলে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়।
আহতদের উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গুরুতর আহত আয়নাল মিয়াকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে বাসের চালক ও তাঁর সহকারীও রয়েছেন। যাত্রীদের বেশিরভাগের বাড়ি রূপগঞ্জের আতলাপুর, ফাইসকা ও দড়িচাইট্টা গ্রামে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক আহমেদ নূর বলেন, বাসটি উদ্ধার করার চেষ্টা চলছে। মামলার প্রস্তুতি চলছিল বলে পুলিশ জানায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ