ঢাকা, সোমবার 13 August 2018, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৫, ১ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আওয়ামী লীগের শক্তি শেষ হয়ে এসেছে -নোমান

গতকাল রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের উদ্যোগে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয় -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেছেন, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের শক্তি কমে এসেছে। এখন যে কয়দিন ক্ষমতায় আছে তারা নির্যাতন করে টিকে থাকতে চাইছে। শেষ সময়ে এসে সরকার স্বৈরাচারীর মাত্রা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। এ অবস্থা হয়েছিল ইতোপূর্বে আয়ুব খান ও এরশাদের ক্ষমতার শেষ সময়ে। আওয়ামী লীগের সময়ও শেষ হয়ে এসেছে।
গতকাল রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মুক্তিযোদ্ধা দলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইসতিয়াক আজিজ উলফাতের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্যে রাখেন বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বীর প্রতিক, বিএনপির স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক শিরিন সুলতানা, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান প্রমুখ।
আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের আন্দোলন কোনো রাজনৈতিক দলের ছিল না। তারা রাজনৈতিক দলগুলোকে বুঝিয়ে দিয়েছে সরকার টেকার মতো নয়, সরকারকে মেরামত করতে হবে।
তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের প্রথমে সমর্থন জানানো ছিল সরকারের একটা কৌশল। সমস্ত জাতি যখন এক তখন সরকার শিক্ষার্থীদের সমর্থন জানায়। এরপর আওয়ামী লীগ সরকারের চিরায়ত স্বভাব প্রকাশ পায় শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালিয়ে। এ হামলা থেকে সাংবাদিকরাও রেহায় পায়নি।
নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা, গ্রেফতার ও সাংবাদিকদের ওপর হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিএনপির এ নেতা বলেন, দেশে সুশাসন নেই, দেশ অর্থনৈতিকভাবে তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত হয়েছে।
নোমান বলেন, সরকার স্বৈরচারী কর্মকা- বাড়িয়ে দিয়েছে। তারা সাধারণ মানুষসহ বিএনপি কর্মীদের ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে। আইয়ুব খান ও এরশাদেরও হাতিয়ার ছিল লাঠি আর টিয়ারগ্যাস। বর্তমান সরকারের হাতিয়ার এখন তা’ই। সরকার স্বৈরচারী শাসক হয়েছে। সংবিধান মানছে না। তারা সংবিধানের রক্ষক হয়ে ভক্ষকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে।
তিনি বলেন, আমরা মামলা হামলা গুমের ভয় পায় না। বুলেটের ভয় পায় না। দেশের মানুষও আপনাদের বুলেটের ভয় পায় না। বুলেটের ভয় দেখিয়ে আয়ুব খান টিকে নাই। এরশাদ টিকে থাকতে পারেনি। আপনারাও টিকতে পারবেন না। জনগণ বুলেটের পরিবর্তে ব্যালটের মাধ্যমে আপনাদের পতন ঘটাবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ