ঢাকা, মঙ্গলবার 14 August 2018, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৫, ২ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আন্দোলনের মাধ্যমেই নিরপেক্ষ সরকার ও খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে -ড. মোশাররফ

স্টাফ রিপোর্টার: আন্দোলনের মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত এবং নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের দাবি আাদায় করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি'র স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, বর্তমান সরকার বিএনপিকে ছাড়া আবারো ৫ জানুয়ারি স্টাইলে নির্বাচনী নাটক মঞ্চস্থ করে ক্ষমতা দীর্ঘায়িত করার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে নির্জন কারাগারে অন্তরীণ করে রাখা সেই ষড়যন্ত্রেরই অংশ। সরকার আইনী মারপ্যাচে ফেলে বেগম জিয়াকে মুক্তি দিচ্ছে না। তার সুচিকিৎসা করা হচ্ছে না। তার প্রতি অত্যন্ত অমানবিক আচরণ করছে। গতকাল সোমবার কুমিল্লার দাউদকান্দি সদরের দোনারচরে স্থানীয় বিএনপি আয়োজিত ‘সম্প্রতি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত জুয়েল প্রধান রায়হানের রুহের মাগফিরাত কামনায় শোক সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে তিনি এইসব কথা বলেন। শোক সভা শেষে ড. মোশাররফ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে তিনি (ড. মোশাররফ) ৫ লাখ টাকার একটি চেক নিহত রায়হানের মা রেহেনা বেগমের হাতে প্রদান করেন। ড. মোশাররফ ফাউন্ডেশনের প্রদত্ত ৫ লাখ টাকার চেক হাতে পেয়ে অসহায় রেহেনা বেগম আবেগআপ্লুত হয়ে পড়েন। এছাড়াও ওই সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ২ জনকে নগদ অর্থ সহায়তা করা হয়।
ড. মোশাররফ বলেন, নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সব দলের অংশগ্রহণমূলক একটি গ্রহণযোগ্য, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে দেশের মানুষ আজ ঐক্যবদ্ধ। সরকার গায়ের জোরে জনগণের যৌক্তিক দাবি মানছে না, গড়িমসি করছে। তিনি অত্যন্ত দৃঢ়তার সাথে বলেন, আন্দোলনের মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত এবং নির্বাচনকালীন সরকার ব্যবস্থার দাবি আদায় করে মুক্ত খালেদা জিয়াকে নিয়েই নির্বাচনে যাব।
বিএনপির সিনিয়র এই নেতা বলেন, বর্তমান সরকার যে একটি  স্বৈরশাসক, তা আন্তর্জাতিকভাবেও স্বীকৃত। এই  স্বৈরশাসক দেশের গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে সম্পূর্ণ ধ্বংস করেছে। অর্থনীতি এখন স্থবির। বৈদেশিক বিনিয়োগ নেই। কর্মসংস্থান নেই। আইনের শাসন নেই। মানুষ ন্যায়বিচার পাচ্ছে না। রাষ্ট্র পরিচালনায় সরকারের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। তাদের নির্দেশ সরকারী কর্মকর্তারা শুনছে না। সর্বত্র এক জগাখিচুড়ি অবস্থা বিরাজমান। জনগণ এই দুঃসহ ত্রাহি অবস্থা থেকে পরিত্রাণ চায়, মুক্তি চায়। তিনি বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার ব্যবস্থার দাবি আদায়ের আন্দোলনে অংশ নিতে এখনই প্রস্তুতি নেবার জন্য সকলের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।
বিএনপি নেতা এনামুল হক সরকারের সভাপতিত্বে শোকসভায় বিএনপি নেতা দেলোয়ার হোসেন মিয়াজী, রমিজ উদ্দিন লন্ডনী, আজহারুল হক শাহীন, নুর মো. সেলিম সরকার, নুরুল আমীন সরকার, আরিফ মাহামুদ, কাউসার আলম সরকার, খন্দকার বিল্লাল হোসেন (সুমন কমিশনার), আব্দুল মতিন, ভিপি শাহাবুদ্দিন ভূইয়া, ভিপি জাহাঙ্গীর আলম প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। পরে ড. মোশাররফ সন্ত্রাসী হামলায় আহত সাংবাদিক মো. আলী শাহীন ও ছেলে মসিহ আলী নাফেকে দেখতে তার দাউদকান্দি বাসভবনে যান। এসময় তিনি আহতদের শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নেন এবং সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ