ঢাকা, শুক্রবার 21 September 2018, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ১০ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

১৭০০ টাকার জন্য বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা!

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:

কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার কালিপুরে পাওনা টাকা নিয়ে বিরোধে শাহীন মিয়া (১৯) নামের এক যুবক খুন হয়েছেন। পেশায় নির্মাণ শ্রমিক শাহীন এলাকার নূরু মিয়ার ছেলে।

সোমবার ভোরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। পরে প্রাথমিক সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের লাশ কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, রোববার রাত সাড়ে ১০টার দিকে শামীম মিয়া (২০) ও মোশারফসহ (৩৪) কয়েকজন বন্ধু শাহীনকে বাড়ি থেকে ডেকে নেয়। পরে গভীর রাত পর্যন্ত ঘরে না ফেরায় স্বজনরা তাঁকে খোঁজ করতে থাকে। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে শাহীনকে রক্তাক্ত অবস্থায় গ্রামের নদীরপাড়ে ড্রেজার সংলগ্ন এলাকায় পড়ে থাকতে দেখে। সেখান থেকে গুরুতর আহতাবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর তিনি মারা যান।

নিহতের মা শাহারবানু জানান, পেশায় কাঠমিস্ত্রি শামীম তাঁর ছেলেকে রাতে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করে। তাঁর ছেলের কাছে শামীম এক হাজার ৭০০ টাকা পেত। এই পাওনা টাকা পরিশোধের জন্য কয়েকদিন সময় চেয়েছিল তাঁর ছেলে শাহীন। কিন্তু শামীম সেই পাওনা টাকার জন্য তাঁর ছেলেকে এমন নির্মমভাবে হত্যা করবে, তা ভাবেননি বলেও জানান তিনি।

ভৈরব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোখলেছুর রহমান জানান, পাওনা টাকা নিয়ে বিরোধে এই হত্যাকাণ্ড হতে পারে বলে বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে। তবে পুলিশ মাঠপর্যায়ে কাজ করছে। তদন্ত সাপেক্ষ মূল কারণ উদঘাটন করা যাবে। অপরাধীদের গ্রেপ্তারে পুলিশ সক্রিয় আছে বলেও দাবি করেন তিনি।-এনটিভিনিউজ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ