ঢাকা, মঙ্গলবার 14 August 2018, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৫, ২ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

টিএনসির সাতক্ষীরা পরিচালক ও তার স্ত্রী আটক

সাতক্ষীরা সংবাদদাতা : জামায়াত সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে সাতক্ষীরা টিএনসি নামক একটি স্বাস্থ্য সংস্থার শাখা পরিচালক ও তার স্ত্রীকে আটক করেছে পুলিশ। রবিবার রাত দেড়টার দিকে শহরের মুন্সিপাড়াস্থ ভাড়া বাড়ি থেকে তাদেকে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন জাহিদুল ইসলাম,তার স্ত্রী সাদিয়া সুলতানা ও একরামুল ইসলাম। সাদিয়া সুলতানার ভাই নাজমুল ইসলাম জানান, তার বোন ও ভগ্নিপতি ও এক ভাইকে পুলিশ আটক করে নিয়ে গেছে। এসময় অপর দুই বোন ও এক ভগ্নিপতি বাড়িতে ছিল। এক বোন সন্তান প্রসবের অপেক্ষা ও অপর বোন এবার ফাজিল পরীক্ষা দিচ্ছে। এক বোন মারাত্মক অসুস্থ । ডাক্তারি কাগজপত্র দেখানোর কারণে পুলিশ তাদেরকে রেখে যায়। এসময় পুলিশ তাদের ব্যবহৃত ৬টি মোবাইল,একটি কম্পিউটার, একটি ল্যাপটপ ও নগত ২৫ থেকে ৩০ হাজার পরিমানে টাকা নিয়ে যায়।
 তবে পুলিশের দাবী  গোপন বৈঠক করার সময় সাতক্ষীরা  জেলা ছাত্রশিবির ও ছাত্রীসংস্থার সভাপতিকে আটক করা হয়েছে। এসময় সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ জিহাদী বই, লিফলেট, কাফনের কাপড়, হ্যান্ডবিল, সরকার পতনের বই উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার ভোর রাতে সাতক্ষীরা মুন্সিপাড়াস্থ জেলা জামায়াতের অফিস সংলগ্ন মনজির আহমেদ নুরের বাসা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রশিবিরের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম ও  ছাত্রীসংস্থার সভাপতি সাদিয়া সুলতানা ও শিবির সভাপতির শ্যালক একরামুল ইসলাম। সাতক্ষীরা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক তদন্ত শাহরিয়ার হাসান জানান, সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রশিবিরের সভাপতি জাহিদ ও  ছাত্রীসংস্থার সভাপতি সাদিয়া সুলতানা গত চার বছর আগে স্বামী স্ত্রী পরিচয়ে মুনসিপাড়াস্থ মনজির আহমেদের বাসা ভাড়া নিয়ে থাকে। ছাত্রশিবিরের গোপন বৈঠক হচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিবি পুলিশ সেখানে অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় সেখান থেকে সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রশিবিরের সভাপতি ও মহিলা ছাত্রসংস্থার সভাপতি ও তার শ্যালককে আটক করা হয়। এবং সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ জিহাদী বই ও লিফলেট উদ্ধার করা হয়।তিনি আরও বলেন, তারা উক্ত বাসাটি ভাড়া নিয়ে দীর্ঘদিন সরকার পতনের কাজ করছিল। তবে জাহিদ এক সময় শিবিরের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিল বলে জানা যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ