ঢাকা, বুধবার 15 August 2018, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫, ৩ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সু চি’র ভূমিকায় হতাশ মাহাথির

মাহাথির                                    সু চি

১৪ আগস্ট, উইং ডটকম, ভয়েস অব আমেরিকা : রোহিঙ্গা নিধনযজ্ঞের সমালোচনা করেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব নিশ্চিতে দেশটির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। সে দেশের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চি’র ভূমিকা নিয়েও তীব্র হতাশার কথা জানিয়েছেন মাহাথির।

গত বছরের ২৫ আগস্ট নিরাপত্তা চৌকিতে আরসার হামলাকে মিয়ানমারের পক্ষ থেকে রোহিঙ্গাবিরোধী অভিযানের কারণ বলা হলেও বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন ও সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, রাখাইন থেকে রোহিঙ্গাদের তাড়িয়ে দিতে এবং তাদের ফেরার সমস্ত পথ বন্ধ করতে আরসার হামলার আগে থেকেই পরিকল্পিত সেনা-অভিযান শুরু হয়েছিল। চলমান জাতিগত নিধনে হত্যা-ধর্ষণসহ বিভিন্ন ধারার সহিংসতা ও নিপীড়ন থেকে বাঁচতে বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রায় সাড়ে ৭ লাখ মানুষ।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ভয়েস অব আমেরিকার খবরে মাহাথিরকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, রোহিঙ্গাদের বিপন্নতার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আধুনিক মালয়েশিয়ার এই রূপকার। তাদের ওপর নিপীড়ন বন্ধ করতে না পারায় অং সান সু চি’কে নিয়ে ‘খুবই হতাশ’ তিনি। মাহাথির মিয়ানমার সম্পর্কে বলেছেন, ‘তারা যা করেছে, তা সত্যিই অবিচার। মানুষকে হত্যা করা আর গণখুনের মতো ঘটনাগুলো কোনও সভ্য দেশের আচরণ হতে পারে না।’ 

আন্তর্জাতিক চাপের মুখে বিপুল পরিমাণ শরণার্থীকে ফিরিয়ে নিতে পর্যায়ক্রমে বাংলাদেশ ও জাতিসংঘের সঙ্গে প্রত্যাবাসন চুক্তি করতে বাধ্য হয় মিয়ানমার। তবে জুলাই মাসে রোহিঙ্গা প্রশ্নে মিয়ানমারের ভূমিকায় শঙ্কা প্রকাশ করে মানবাধিকার কমিশন। ‘ইউনাইটেড নেশনস হিউম্যান রাইটস কাউন্সিল’ কর্তৃক নিযুক্ত মিয়ানমারে মানবাধিকার পর্যবেক্ষণ বিষয়ক বিশেষ দূত ইয়াংহি লি সে সময় জানান, দেশটিতে অবস্থানরত অনেকের সঙ্গে টেলিফোনে আলাপ করতে গিয়ে তিনি মিয়ানমারের এমন সব পদক্ষেপের কথা জেনেছেন, যা শঙ্কিত হওয়ার মতো। লি মন্তব্য করেছেন, এখনও রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর মতো উপযুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত হয়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ