ঢাকা, বুধবার 15 August 2018, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫, ৩ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কাল শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন

স্টাফ রিপোর্টার: দৈনিক সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ারের দাফন আগামীকাল বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হবে। গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টায় মরহুমের কফিন সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের এসকিউ-৪৪৬ ফ্লাইটে ঢাকায় এসে পৌঁছায়। আজ বুধবার ও কাল বৃহস্পতিবার কয়েকদফা জানাযা শেষে বাদ আসর মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হবে। সিঙ্গাপুর থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সমকালের বিশেষ প্রতিনিধি শরিফুল ইসলাম। উল্লেখ্য, সোমবার সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় স্থানীয় সময় সোমবার রাত ১১টা ২৫ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় রাত ৯টা ২৫ মিনিট) মারা যান গোলাম সারওয়ার। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। তিনি দুই মেয়ে ও এক ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান।
পরিবার সূত্র জানায়, সমকাল সম্পাদকের লাশ ঢাকা বিমানবন্দও থেকে নিয়ে যাওয়া হবে তার উত্তরার বাসভবনে। সেখান কিছু সময় রাখার পর তা কফিন রাখা হয় বারডেম হাসপাতালের হিমঘরে।
জানা গেছে, আজ বুধবার তার জন্মস্থান বরিশাল বানারীপাড়ায় কফিন নেয়া হবে। সেখান থেকে রাতে ঢাকায় এনে আবার বারডেমের হিমঘরে রাখা হবে। কাল বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় গোলাম সারওয়ারের কফিন নিয়ে আসা হবে তার প্রিয় কর্মস্থল সমকাল কার্যালয়ে। সেখানে সহকর্মীদের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে পার্শ্ববর্তী বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় মাঠে তার জানাযা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ব্যবস্থাপনায় সকাল ১১টা থেকে বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত সমকাল সম্পাদকের লাশ সর্বস্তরের জণগণের শ্রদ্ধার জন্য রাখা হবে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে।
শ্রদ্ধা জানানোর পর সেখান থেকে তার লাশ নিয়ে যাওয়া হবে জাতীয় প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গণে। দীর্ঘ কর্মময় জীবনের অনেকটা সময় তিনি এখানে কাটিয়েছেন। সংবাদকর্মীরা সেখানে গোলাম সারওয়ারের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। বাদ জোহর তার জানাযা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর বাদ আসর মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে গোলাম সারওয়ারকে দাফন করা হবে।
গত ৩ আগস্ট মধ্যরাতে সমকাল সম্পাদককে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে সিঙ্গাপুরে নেয়া হয়। পরদিন সকালে তাকে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসার পর তার শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতিও হয়েছিল। নিউমোনিয়া সংক্রমণ হ্রাসের পাশাপাশি ফুসফুসে জমে থাকা পানিও কমে গিয়েছিল। হার্টও স্বাভাবিকভাবে কাজ করছিল। কিন্তু গত রোববার হঠাৎ করে তার রক্তচাপ কমে যায়। কিডনিও স্বাভাবিকভাবে কাজ করছিল না। এ অবস্থায় সোমবার বিকেলে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়। এর আগে ২৯ জুলাই মধ্যরাতে গোলাম সারওয়ার রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি হন। গোলাম সারওয়ার বার্তা সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন কাজ করেছেন দৈনিক ইত্তেফাকে। এরপর দৈনিক যুগান্তরের মাধ্যমে সম্পাদকের খাতায় নাম লেখান তিনি। সর্বশেষ তিনি ছিলেন সমকালের সম্পাদক।
শোক প্রকাশ: গোলাম সারওয়ারের মৃত্যুতে সোমবারই রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন গভীর শোক জানিয়েছে। গতকাল শোক জানিয়েছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমির মকবুল আহমাদ, বিকল্পধারার চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. বদরুদ্দৌজা চৌধুরী, লোবারপার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভূইয়া প্রমুখ। এছাড়াও গোলাম সারওয়ারের মৃত্যুতে বিভিন্ন সংগঠন শোক জানিয়েছে। নেতৃবৃন্দ মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনা এবং শোকাহত পরিবারের সদস্যদেও গভীর সমবেদনা জানান।
বিএফইউজে ও ডিইউজে নেতৃবৃন্দের শোক
দৈনিক সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ারের ইন্তেকালে গভির শোক প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) নেতৃবৃন্দ। এক যৌথ শোকবাণীতে বিএফইউজে সভাপতি রুহুল আমিন গাজী, মহাসচিব এম আব্দুল্লাহ এবং ডিইউজে সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের সাংবাদিকতার জগতে গোলাম সারওয়ার ছিলেন এক উজ্জল নক্ষত্র। তার মৃত্যুতে বাংলাদেশের সাংবাদিকতা অঙ্গনে এক অপুরণীয় ক্ষতির সৃষ্টি হয়েছে। তিনি ছিলেন দেশের আধুনিক সাংবাদিকতার অন্যতম পথিকৃত, তার অবদান জাতি দীর্ঘদিন শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে। নেতৃবৃন্দ মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোক-সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। উল্লেখ্য গত রোববার বাংলাদেশ সময় রাত ৯টা ২৫ মিনিটে সিংগাপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ