ঢাকা, বৃহস্পতিবার 16 August 2018, ১ ভাদ্র ১৪২৫, ৪ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ধার করে কোর্ট পরলেন ভাবী প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

১৫ আগস্ট, জে ২৪ ঘণ্টা : স্বভাবসিদ্ধ পোশাক তার। সব ঋতুতেই সালওয়ার কামিজ। মঙ্গলবার পাক জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে অংশগ্রহণ করার সময় এই পোশাকেই ঢুকলেন ভাবী প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

এরপরই সংসদের রীতি অনুযায়ী নতুন সাংসদদের ছবি তোলার প্রথা রয়েছে। আর এই ছবি তুলতে গিয়েই বিপত্তি বাধল ৬ ফুটের হ্যান্ডসাম প্রাক্তন ক্রিকেটারের।

যিনি ছবি তুলবেন, তার মোটেও পছন্দ হয়নি ইমরানের পোশাকখানি। সংসদের ছবি বলে কথা। জহর কোট বা জ্যাকেট না হলে চলে! সংসদের এই চিত্রগ্রাহকের আবদার ফেরালেন না ইমরান।

তবে, তিনি এমন কান্ড করে বসলেন যা দেখে বিস্মিত খোদ চিত্রগ্রাহকই। বরাবরের স্মার্ট ইমরান এগিয়ে এসে চিত্রগ্রাহকের পরা ওয়েস্ট কোর্টটাই ধার চাইলেন।

ভাবী প্রধানমন্ত্রীর এমন আবদার শুনে প্রথমে অবাক হয়ে যান চিত্রগ্রাহক। পরে অবশ্য কোটটি ইমরানকে শুধু দিয়েই ক্ষান্ত হননি, পরাতেও সাহায্য করেছেন তিনি। আর এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই বিশ্ব জুড়েতা রীতিমতো ভাইরাল।

ইমরান খানের এমন ব্যবহারে পরিনত কূটনীতি খুজে পাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। নির্বাচনে জয়লাভ করার পরই প্রাসাদ প্রমাণ ভবন ছেড়ে সাদামাটা ভবনে থাকার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। এমনকি শপথ গ্রহণে জাঁকজমক ব্যবস্থা করতে রাজি হননি।

প্রথম থেকেই তিনি বার্তা দিয়েছেন গরিবের সরকার তৈরি হবে। এর জন্য নিজের জীবনযাপনেও পরিবর্তন আনেন প্রাক্তন পাক অধিনায়ক। আর এ দিন কোট ধার নিয়ে নয়া নজির গড়লেন ভাবী প্রধানমন্ত্রী।

সংসদে এসে এ দিন বিরোধী দলের নেতাদের সঙ্গে তার সৌজন্যবোধ নজর কেড়েছে সকলের। এ দিন পাকিস্তান পিপলস পার্টির সুপ্রিমো বিলওয়াল ভুট্টো জারদারির সঙ্গে ছবি তোলেন ইমরান। উল্লেখ্য, মঙ্গলবারই প্রথম সংসদে পা দিলেন ২৯ বছর বয়সী বেনজির-পুত্র। তাকে শুভেচ্ছা জানান এই প্রবীণ রাজনীতিক।

এ দিন ১৫ তম জাতীয় সংসদে শপথগ্রহণ পর্ব চলে। এমপি হিসাবে ইমরানকে শপথবাক্য পাঠ করান বিদায়ী অধ্যক্ষ আয়াজ সাদিক। ৩৪২ জন সাংসদ এ দিন শপথ পাঠ করেছেন।

পাকিস্তানের হবু প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। এসময় তিনি একাদশ জাতীয় নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ায় ইমরানকে শুভেচ্ছা জানান। মঙ্গলবার ইমরান খানকে ফোন দেন সৌদি যুবরাজ। এ সময় তিনি বলেন, আমার আত্মবিশ্বাস, ইমরান খানের নেতৃত্বে পাকিস্তান সামনের দিকে এগিয়ে যাবে এবং উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে।

তিনি আরও বলেন, আশা করছি বিভিন্ন ক্ষেত্রে পাকিস্তানের সঙ্গে সৌদি আরবের সম্পর্কের উন্নতি ঘটবে।

গত ২৫ জুলাই পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমরান খানের পিটিআই পেয়েছে ১১৫টি আসন। পিএমএল-এন ৬৪টি ও পিপিপি ৪৩টি আসনে জয় পেয়েছে। এদিকে পাকিস্তানের হবু প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের শপথ অনুষ্ঠানের তারিখ তৃতীয়বারের মতো পিছিয়েছে। গত শুক্রবার তেহরিকে ইনসাফের পরিষদ সদস্য ফয়সল জাভেদ এক টুইট বার্তায় জানান, আগামী ১৮ আগস্ট ইমরান খানের শপথ অনুষ্ঠিত হবে।

পূর্বে জানানো হয়েছিল ১১ আগস্ট ইমরান খান শপথ নেবেন। পরে তারিখ পিছিয়ে ১৪ আগস্ট শপথের দিন ঘোষণা করা হয়। ফয়সল জানান, এর আগে ১৩ আগস্ট শপথ নেবেন সদ্য নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ