ঢাকা, বৃহস্পতিবার 16 August 2018, ১ ভাদ্র ১৪২৫, ৪ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় আহত সবুজ চাকরি পাচ্ছে না

স্টাফ রিপোর্টার : ২০০৪ সালে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় আহত সম্রাট আকবর সবুজ আহত হিসেবে একটি সরকারি চাকরির আবেদন করেছিল প্রধানমন্ত্রীর কাছে। কিন্তু আওয়ামী লীগ তাকে ২১ আগস্টের আহত হিসেবে স্বীকৃতি দিচ্ছে না। এবং প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের ২ বছর পরও সম্রাট আকবর সবুজ এখনও পর্যন্ত চাকরি পায়নি। সম্রাট আকবর সবুজ এখনও রাতে ঘুমাতে পারেন না ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার কারণে। পায়ে ব্যথায় কুঁকড়ে ওঠেন। লাঠি ভর দিয়ে চলতে হয়। শরীরের বিভিন্ন স্থানে স্লিন্টারের চিহ্ন।
সেদিনের কথা জানতে চাইতেই বলেন, তৎকালীন স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ভাইয়ের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের সমাবেশে যোগদান করি। নেত্রীর নিরাপত্তার দায়িত্বে মঞ্চের চারপাশেই অবস্থান করছিলাম। মঞ্চে নেত্রীর বক্তৃতা চলছে। কিছুক্ষণ পরই বিক্ষোভ মিছিল। হঠাৎ বিকট আওয়াজ। সবাই দিদ্বিদিক ছুটছে। মনে হচ্ছিল কেয়ামতের মাঠ। চারপাশ ধোঁয়ায় অন্ধকার। তাকিয়ে দেখি অনেক বোনদের লাশ। মঞ্চের আশপাশে অনেকেই দাপড়াচ্ছেন। এ যেন কেয়ামতের ময়দান। সেখান থেকে আমার এক আতœীয় আমাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। ২১ আগস্ট হামলায় আহতদেরকে চিকিৎসার পরিবর্তে ইনজেকশন দিয়ে মেরে ফেলার খবর পেয়ে আমরা গোপনে ঢাকা মেডিকেল ত্যাগ করি। আমি অর্থাভাবে বিনা চিকিৎসায় দিন দিন আমার শারীরিক অবস্থা অবনতি ঘটছে। আর্থিক সহায়তাও পাচ্ছি না ।
শরীরের যন্ত্রণা নিয়ে বেঁচে আছি। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, পঙ্গু হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছি। এখনও বিচার শেষ না হওয়ায় ক্ষোভ জানান সম্রাট আকবর সবুজ বলেন, হামলার বিচার এখনও পাইনি। বিশ্বাস করেন,  বিচার হবে। অপরাধীরা বাংলার মাটিতেই শাস্তি পাবে। সম্রাট আকবর সবুজের স্থায়ী ঠিকানা, চর লক্ষীপুর, পোস্ট: ছিলার চর, থানা: মাদারীপুর সদর,জেরা মাদারীপুর এবং বর্তমান ঠিকানা, চর রুহিতপুর, কেরানীগঞ্জ মডেল থানা, জেলা ঢাকা। যোগাযোগের নম্বর: ০১৬৭৭-২৭৯১০৩, তার জাতীয় পরিচয় পত্র নং: ২৬১৩৮৫১১৭৪৪৫৪, আহত সবুজ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আবেদন করেছেন তাতে সুপারিশ করেছেন খাদ্যমন্ত্রী এডভোকেট মো: কামরুল ইসলাম, রুহিতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী আব্দুল আলী, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, মেহের আফরোজ চুমকি এমপি, আ ক ম মোজাম্মেল হক মন্ত্রী, শাজাহান খান মন্ত্রী । এই আবেদনের প্রক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব-২ ড. নমিতা হালদার এনডিসিকে পধানমন্ত্রী নির্দেশ প্রদান করেন সম্রাট আকবর সবুজকে একটি চাকরি দেওয়ার ব্যবস্থা করার জন্য। কিন্তু ২০১৬ সালের ১৭ জুলাই প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দেওয়া হলেও সবুজ এখন পর্যন্ত চাকরি পাইনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ