ঢাকা, বৃহস্পতিবার 16 August 2018, ১ ভাদ্র ১৪২৫, ৪ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বিএনপি নেতা তরিকুল ইসলামের শারীরিক অবস্থার অবনতি

চৌগাছা (যশোর) সংবাদদাতা : বিএনপির স্থায়ী কমিটির প্রভাবশালী সদস্য ও খুলানা বিভাগের অবিসংবাদিত নেতা এম তরিকুল ইসলামের শারীরিক অবস্থা খুবই দুর্বল অবস্থায় পৌঁছেচে। সম্প্রতি তার একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে, যা দেখে চেনার উপায় নেই তিনিই আসলে তরিকুল ইসলাম কি না। বিগত চারদলীয় জোট সরকারের সময় তথ্য এবং পরিবেশ ও বনমন্ত্রী ছিলেন তিনি। এমনকি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর মহাসচিব হওয়ার আগে তার নামও জোরেশোরে আলোচনায় ছিল। সে সময় শোনা গিয়েছিল অসুস্থতার কারণে তিনি মহাসচিব পদে আগ্রহী নন। সেই লৌহমানব এখন অসুস্থ হয়ে এমন অসহায় হয়ে গেছেন তা অকল্পনীয়। চাহনিতে রয়েছে উদাস ভাব।
তার শারীরিক এই  অবস্থা সর্ম্পকে  খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, শ্বাসকষ্টসহ বার্ধ্যকজনিত নানা রোগে ভুগছেন বিএনপির বর্ষীয়ান এই জননেতা। প্রায় এক বছর যাবৎ নিয়মিত তার কিডনি ডায়ালাইসিস করাতে হচ্ছে। চিকিৎসকদের পরামর্শে উন্নত চিকিৎসার জন্যে গত মার্চে সিঙ্গাপুর ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি হসপিটাল থেকে চিকিৎসা করানো হয়। কিন্তু অবস্থার বিশেষ কোন পরিবর্তন হয়নি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে তরিকুল ইসলামের ছোট ছেলে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক (খুলনা বিভাগ) অনিন্দ্য ইসলাম অমিত বলেন, বাবার শারীরিক অবস্থ খুবই দুর্বল। চলতি সপ্তাহের মধ্যে সিঙ্গাপুরে একটা সিটিস্ক্যান করানো হবে। সেটার প্রতিবেদন পাওয়ার পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বাবাকে সিঙ্গাপুরে নেওয়া হবে কি না। তাঁর চলাফেরা এখন অনেকটাই কঠিন হয়ে গেছে বলেও জানান তার এই ছেলে। এদিকে তার শারীরিক অবস্থার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর যশোর অঞ্চলের বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোটের নেতাকর্মিদের মধ্যে দু:শ্চিন্তা নেমে এসেছে। তাদের বক্তব্য তরিকুল ইসলাম কেবলমাত্র বিএনপি  নয় ২০ দলীয় জোটের খুলনা বিভাগের একমাত্র অভিভাবক ছিলেন তিনি। এব্যাপারে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নেতা মাও: আজীজুর রহমান বলেন তরিকুল ইসলাম আমাদের একজন অকৃত্রিম বন্ধু ও অভিভাবক ছিলেন। যশোর ২ (চৌগাছা ঝিকরগাছা) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য জামায়াত নেতা মুহাদ্দিস আবু সাঈদ দৈনিক সংগ্রামকে বলেন তরিকুল ভাই আমাদের অভিভাবক এবং এ অঞ্চলের গনমানুষের নেতা তার অসুস্থতা আমাদেরকে চরমভাবে কষ্ট দেয়। জামায়াতের যশোর (পূর্ব)জেলা জামায়াতের আমীর মাস্টার নুরুন্নবী, সেক্রেটারী অধ্যক্ষ আবু জাফর, যশোর (পশ্চিম) জেলা আমীর মাও: রেজাউল করিম,সেক্রেটারী নাজির হুসাইন, শহর জামায়াতের আমীর অধ্যাপক গোলাম রসুল, সেক্রেটারী অধ্যাপক গোলাম কুদ্দুস, জামায়াত নেতা অ্যাড. গাজী এনামুল হক, চৌগাছা উপজেলা জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর মাও: গোলাম মোরশেদ, সেক্রেটারী আব্দুল কাদেরসহ অনেকে তরিকুল ইসলামের আশু রোগমুক্তি কামনা করে বিবৃতি  দিয়েছেন।
বিবৃতিতে তারা বলেন তরিকুল ইসলাম যশোর জেলার আপামর জনসাধারনের হৃদয়ের স্পন্দন। মহান আল্লাহ যেন তাকে সুস্থ করে আমাদের মাঝে আবার ফিরিয়ে দেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ