ঢাকা, শনিবার 18 August 2018, ৩ ভাদ্র ১৪২৫, ৬ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাজধানীতে জমে উঠেছে কুরবানির পশুর হাট

কমলাপুর হাটে গতকাল শুক্রবার এই গরুটির দাম হাঁকা হয় ৭ লাখ টাকা মাত্র -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার: রাজধানীর ২৫টি কুরবানির পশুর হাটে সব আয়োজন শেষ হলেও আজ থেকে অনুষ্ঠানিকভাবে পশু বিক্রি শুরু হচ্ছে। ইতোমধ্যে এই ২৫টি হাট ১৯ কোটি ৩০ লাখ ৫৭ হাজার ৫৭২ টাকায় ইজারা চূড়ান্ত করেছে দুই সিটি কর্পোরেশন। যদিও আইন অমান্য করে আগে থেকেই প্রস্তুতি শুরু করেছেন অনেকে। আগাম পশুর হাট শুরু হওয়াতে রাজধানীতে তীব্র যানজটের তৈরি হয়েছে। কিন্তু হাট ইজারাদাররা বলছেন, বাজার পশু উঠলেও বিক্রি শুরু হচ্ছে আজ থেকেই। চলবে বুধবার দুপুর ১২ টা পর্যন্ত।
রাজধানীর পশুর হাটে এবার মাঝারি আকারের গরুর সংখ্যাই বেশি। দাম ৭৫ হাজার থেকে ১ লাখ ২৫ হাজার টাকার মধ্যে। আর বড়গুলো দেড় লাখ থেকে ২০ লাখ টাকা পর্যন্ত দাম হাঁকছেন ব্যবসায়ীরা। ঈদের এখনো বাকি পাঁচদিন, তাই এখন দরদামের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ক্রেতা-বিক্রেতারা। তবে প্রচ- রোদ আর গরমে অতিষ্ঠ ব্যবসায়ীরা।
সাড়ে তিন বছরের কালা মানিক। এসেছে পাবনা থেকে। মালিক বজলুর দাম হাঁকছেন ১২ লাখ টাকা। তবে এখনো কেউ দাম বলেনি। যারা আসছেন কেবল দরদামই করছেন। পূর্বাচলের হাটে ৫০ হাজার থেকে ১২ লাখ টাকা পর্যন্ত দামের গরু উঠেছে।
খিলক্ষেত, তেঁজগাওসহ প্রতিটি হাঁটেই পর্যাপ্ত কুরবানির পশু রয়েছে। ক্রেতা-বিক্রেতাদের নিরাপত্তায় রয়েছে র‌্যাব-পুলিশের অস্থায়ী ক্যাম্প। প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, এবছর কুরবানির পশুর চাহিদা ১ কোটি ৮ লাখ। আর দেশে পশু রয়েছে ১ কোটি ১৬ লাখ।
রাজধানীর ২৫টি কুরবানির পশুর হাট ১৯ কোটি ৩০ লাখ ৫৭ হাজার ৫৭২ টাকায় ইজারা চূড়ান্ত করেছে দুই সিটি কর্পোরেশন। এসব হাটে আজ শনিবার থেকে কুরবানির পশু বিক্রি শুরু হবে। যদিও আইন অমান্য করে আগে থেকেই প্রস্তুতি শুরু করেছেন অনেকে।
দুই সিটি কর্পোরেশন সূত্র জানায়, এবারের ২৫টি হাটের মধ্যে দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) এলাকায় ১৫টি এবং ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এলাকায় ৯টি। এছাড়া গাবতলীর স্থায়ী পশুরহাটেও বসছে কুরবানির পশুর হাট। তবে এতগুলো হাটের ইজারা সম্পন্ন হয়েছে মাত্র ১৯ কোটি টাকায়।
সিটি করপোরেশন সূত্র জানায়, দক্ষিণ সিটির ১৫টি হাটের মধ্যে ৭টি হাট ইজারা ও ৮টি হাট স্পট টেন্ডারের মাধ্যমে টোল আদায়ের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। ঢাকা দক্ষিণের ৭টি হাটের ইজারা মূল্য- মেরাদিয়া পশুর হাটে ৬৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা, উত্তর শাজাহানপুর-খিলগাঁও মৈত্রী সংঘ মাঠের ইজারা ৮ লাখ ২০ হাজার টাকা। জিগাতলা-হাজারীবাগ মাঠ ১ কোটি ১৫ লাখ, রহমতগঞ্জ খেলার মাঠ ১১ লাখ ৭ হাজার ১৫০ টাকা। কামরাঙ্গীরচর চেয়ারম্যান বাড়ির হাট ৫ লাখ ২০ হাজার টাকা। পোস্তগোলা শ্মশানঘাট ২৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা। শ্যামপুর বালুর মাঠ ১ কোটি ৫ লাখ টাকা।
এদিকে দক্ষিণ সিটির ব্রাদার্স ইউনিয়ন বালুর মাঠ, কমলাপুর স্টেডিয়াম এলাকা, আরমানিটোলা খেলার মাঠ, ধূপখোলা, দনিয়া, এবং সাদেক হোসেন খোকা মাঠের কোনো দরপত্র না পড়ায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন নিয়ে ভিন্ন নামে স্পট টেন্ডারের মাধ্যমে খাস আদায় এবং এর সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে নতুন করে আরও দুইটি স্থানে হাট বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএসসিসি।
ডিএসসিসির খাস আদায়ের ৮টি হাটের স্থানগুলো হচ্ছে ৩২ নং ওয়ার্ডে সামসাবাদ মাঠ সংলগ্ন সিটি করপোরেশনের খালি জায়গা। এখান থেকে ১ কোটি ৫৫ লাখ টাকা খাজনা আদায়ের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এছাড়া কমলাপুর স্টেডিয়াম সংলগ্ন বিশ্বরোডের পাশের খালি জায়গা থেকে ৩৫ লাখ টাকা, দনিয়া মাঠ ১ কোটি ৫ লাখ, ধূপখোলা মাঠ ৩০ লাখ, ৪১ নং ওয়ার্ডের কাউয়ার টেক মাঠ ২৫ লাখ, গোলাপবাগ মাঠ ৩০ লাখ। এছাড়া নতুন দুই হাটের মধ্যে আফতাব নগর হাটটি ৫৫ লাখ এবং আমুলিয়া মডেল টাউনের খালি জায়গা থেকে ১৫ লাখ টাকা খাস আদায় নির্ধারণ করা হয়েছে।
অন্যদিকে ঢাকা উত্তরের একটি স্থায়ী হাটসহ ১০টি হাট চূড়ান্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরের হাট ইজারা হয়েছে ২ কোটি ২১ লাখ টাকায়, এছাড়া তেজগাঁওয়ে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট খেলার মাঠের ৭৫ লাখ, বসুন্ধরা হাউজিংয়ের খালি জায়গা ১ কোটি ১ লাখ, ভাটারা (সাঈদ নগর) ২ কোটি ২৯ লাখ, মোহাম্মদপুর বুদ্ধিজীবী সড়ক সংলগ্ন (বছিলা) ৯০ লাখ, মিরপুর ৬ নম্বর সেকশনের ইস্টার্ন হাউজিংয় হাট ১ কোটি ৪৮ লাখ ৭১ হাজার ৭৮৬ টাকা। মিরপুরের ডিওএইসএস ২৫ লাখ ২০ হাজার ৭৮৬ টাকা। খিলক্ষেত বনরূপা হাটের ইজারা মূল্য ২ কোটি ৩০ লাখ টাকা। উত্তরখান মৈনারটেক ১০ লাখ ৬৫ হাজার টাকায় ইজারা দেয়া হয়েছে।
সরেজমিনে দেখা যায়, মেরাদিয়া, গাবতলি, ঝিগাতলা, কমলাপুরসহ সব হাটগুলোতে আরও এক সপ্তাহ আগে থেকে বাঁশ ও তাবু টাঙ্গিয়ে হাটের প্রস্তুতি নিয়েছে ইজারাদাররা। হাটগুলোতে ঢাকার বাহির থেকে পশু আসতে শুরু করেছে। কোথাও কোথাও চলছে বিক্রি। যদিও সিটি করপোরেশনের ইজারা শর্ত অনুযায়ী ইজারাদাররা আজ শনিবার হাটের প্রস্তুতি নেবে। আগামীকাল (১৯ আগস্ট) থেকে পশু বিক্রি করবে।
এ বিষয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম জানান, এখন এমনিই শেষ সময়। সিটি কর্পোরেশন বৃহস্পতিবার ইজারাদারদের হাটের কার্যাদেশ দিয়ে দিয়েছে। তাই হাট বসাতে এখন কোন বাধা নেই। গতকাল শুক্রবার থেকে শুরু করে ঈদের দিন পর্যন্ত মোট পাঁচ দিন ইজারাদাররা হাট পরিচালনা করতে পারবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ