ঢাকা, শনিবার 18 August 2018, ৩ ভাদ্র ১৪২৫, ৬ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

গাজীপুরে পৃথক দুর্ঘটনায় গার্মেন্ট কর্মীসহ নিহত ২ ॥ লেগুনায় আগুন

গাজীপুর সংবাদদাতা : গাজীপুরে গাড়ির চাকায় পিষ্ট হওয়ার পৃথক ঘটনায় শুক্রবার গার্মেন্টের এক নারী কর্মীসহ দু’জন নিহত হয়েছে। বিক্ষুব্ধ লোকজন একটি গাড়িতে অগ্নিসংযোগ করেছে। এসময় তারা গাড়ির চালককে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।
জয়দেবপুর থানার এসআই মিলাদুন্নবী ও স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার দুপুরে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের চান্দনা চৌরাস্তা থেকে যাত্রীবাহী একটি লেগুনা জয়দেবপুর যাচ্ছিল। লেগুনাটি বেপরোয়াগতিতে যাওয়ার পথে ঢাকা-জয়দেবপুর সড়কে নলজানি এলাকায় এক পথচারীকে ধাক্কা ও চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই সে নিহত হয়। এ সময় বিক্ষুদ্ধ জনতা লেগুনা চালককে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে এবং লেগুনাতে আগুন ধরিয়ে দেয়। খবর পেয়ে জয়দেবপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নেভায়। নিহতের নাম গাজী সারওয়ার হোসেন (৩৮)। সে নেত্রকোনা জেলার মোহনগঞ্জ থানার আটবাড়ি গ্রামের গাজী মোশারফ হোসেনের ছেলে। সে গাজীপুরের মালেকের বাড়ি এলাকার একটি ফার্মেসিতে বিক্রয় কর্মী হিসেবে কাজ করতো। আটক চালকের নাম মোঃ আব্দুল করিম (২২)। সে ময়মনসিংহের গাফরগাঁও থানার জিরানীবাজার এলাকার সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে।
এদিকে নাওজোড় হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর ওয়াহিদুজ্জামান জানান, একইদিন সকালে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের চান্দনা-চৌরাস্তা এলাকায় শাহজালাল ব্যাংকের সামনে ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়ক পার হওয়ার সময় ঢাকাগামী একটি কভার্ডভ্যান এক গার্মেন্টস কর্মীকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই সে নিহত হয়। নিহতের নাম সালমা বেগম (৪০)। সে বরিশালের বাকেরগঞ্জ থানা এলাকার হারুন শরীফের স্ত্রী। সালমা গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ইটাহাটা এলাকার দিগন্ত সুয়েটার কারখানার শ্রমিক ছিলেন।
পুলিশ উভয় ঘটনায় নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজ উদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ