ঢাকা, শনিবার 18 August 2018, ৩ ভাদ্র ১৪২৫, ৬ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খুলনার ২৮ পশুর হাটের নিরাপত্তায় ৫শ’ সশস্ত্র পুলিশ

খুলনা অফিস : খুলনা জেলা সদরসহ ৯ উপজেলার ২৮ পশুর হাটে এবং জনবহুল এলাকায় নিরাপত্তা ও যানজট নিরসনে ৪৯৬ জন সশস্ত্র পুলিশ নিয়োগ করা হয়েছে। হাইওয়েতে গরুবাহি ট্রাক তল্লাশি করা হচ্ছে না। পশুর হাট সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য পুলিশ ১৪ দফা নির্দেশনা দিয়েছে। বটিয়াঘাটার বারোআড়িয়ায় গতকাল শুক্রবার ছাগলের হাটে কোনো নিরাপত্তা ছিল না।
পশুর হাটে নিরাপত্তার জন্য ৬ জন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, ২৪ জন ইন্সপেক্টর দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া প্রত্যেক পশুর হাটে ৫ জন সশস্ত্র পুলিশ, সাদা পোশাকে গোয়েন্দা, মোবাইল টিম ও জনবহুল এলাকায় চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার ডুমুরিয়া উপজেলার খর্ণিয়া ও শাহপুরের স্থায়ী পশুর হাটে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। জেলার মধ্যে উল্লিখিত হাট দু’টি উল্লেখযোগ্য। অন্যান্য হাটগুলোর মধ্যে রয়েছে-একই উপজেলার আঠারো মাইল, চুকনগর, বটিয়াঘাটা উপজেলার খারাবাদ বাইনতলা, দাকোপ উপজেলার চালনা বাজার, বাজুয়া, পাইকগাছা উপজেলার চাঁদখালি, কাশিমনগর, গদাইপুর, বাঁকা, কয়রা উপজেলার আমাদি, হোগলা, ঘুগরাকাঠি, বামিয়া, হায়াতখালি, গিলেবাড়ি, ফুলতলা উপজেলা সদরের তাজপুর, রূপসা উপজেলার আইচগাতি আমতলা, পূর্ব রূপসার বাগমারা, পিঠাভোগ, তেরখাদা উপজেলার ইখড়ি কাটেঙ্গা, কেটলা গাজিরহাট, পথের বাজার, বারাকপুর ও এমএ মজিদ কলেজ মাঠ। সাপ্তাহিক স্থায়ী হাটে ৮টি জালনোট শনাক্তকরণ মেশিন স্থাপন করা হয়েছে।
এছাড়া বৃহস্পতিবার থেকে মহানগরীর জোড়াগেটে এবং ফুলবাড়িগেটে পশুর হাট বসতে শুরু করেছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে জোড়াগেট পশুর হাটের উদ্বোধন করা হয়।
কেএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার রাশিদা বেগম জানান, জোড়াগেট পশুর হাটে ১শ’ জন এবং ফুলবাড়িগেট পশুর হাটে ৫০ জন সশস্ত্র পুলিশ দায়িত্ব পালন করছে। এছাড়া র‌্যাবও টহল দিচ্ছে।
পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহ সাক্ষরিত এক দাপ্তরিক পত্রে হাটের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানোর জন্য সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের অবহিত করা হয়েছে। পুলিশ সুপারের নির্দেশাবলীতে বলা হয়েছে, মহাসড়কের ওপর কোনো রকম হাট বসবে না, জালনোট শনাক্তকরণ মেশিন স্থাপন করতে হবে, নৌ ও সড়ক পথে ডাকাতের হামলা বন্ধ করতে হবে, ময়লা-আবর্জনা ও বর্জ্য দ্রুত অপসারণ, কুরবানির পশুর কৃত্রিম সঙ্কট হলে গোয়েন্দা কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ