ঢাকা, রোববার 19 August 2018, ৪ ভাদ্র ১৪২৫, ৭ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

পোলার্ড ঝড়ে ১৪ ম্যাচ পর জয় সেন্ট লুসিয়ার

স্পোর্টস ডেস্ক : ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে শক্তিশালী দল গড়েও জয় নেই ১৪ ম্যাচ। ২০১৬ সালের এলিমিনেটর রাউন্ড থেকে পরাজয়ের সেই ধারা ২০১৭ সালে এসে রূপ নেয় ভয়াবহ অবস্থায়। সেই আসরে দলটি জয় পায়নি এক ম্যাচেও। সবমিলিয়ে টানা ১৪ ম্যাচ জয়বিহীন। অবশেষে সেন্ট লুসিয়াকে টানা পরাজয়ের লজ্জা থেকে মুক্তি দিলেন কাইরন পোলার্ড। শুক্রবার সেন্ট লুসিয়ার ড্যারেন স্যামি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বারবাডোজকে হারানোর মূল নায়ক পোলার্ড। নিজে টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি পেয়েছেন। দলও পেয়েছে সিপিএলের সর্বোচ্চ দলীয় স্কোর। আর তাতেই ৩৮ রানের স্বস্তির জয় পেয়েছে সেন্ট লুসিয়া। টসে হেরে ব্যাটিং করতে নেমে স্কোর বোর্ডে ২০ রান যোগ করতেই প্রথম উইকেট হারায় সেন্ট লুসিয়া। রানের খাতা খোলার আগেই বিদায় নেন অজি তারকা ডেভিড ওয়ার্নার। তবে আরেক ওপেনার আন্দ্রে ফ্লেচার ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন। তার ৫২ বলে ৬ ছক্কা আর ৬ চারে করা ৮০ রান দলকে এনে দেয় শক্ত ভিত্তি। তবে এই ফাঁকে উইকেটও হারাতে থাকে দল। দলীয় ৫৭ রানে শূন্য হাতে বিদায় নেন নেন্ডল সিমন্স, এরপরই উইকেটে এসে রীতিমত তা-ব চলান পোলার্ড। তার ব্যাট থেকে আসে ৫৪ বলে ১০৪ রান। ৮ ছক্কা আর ৬ চারে গড়া এই ইনিংসটি সেন্ট লুসিয়াকে ৬ উইকেট হারিয়ে সিপিএল রেকর্ড ২২৬ রানের বিশাল স্কোর এনে দেয়। পোলার্ডের ঝড়ের দিনে বল হাতে প্রতিপক্ষ বোলারদের অসহায়ত্ব চোখে পড়বে এটাই স্বাভাবিক। হয়েছেও তাই। তবে ৪ ওভারে ৩৫ রান খরচে ৩ উইকেট নিয়ে কিছুটা ব্যতিক্রম পাকিস্তানী পেসার ওয়াহাব রিয়াজ। বিশাল টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা বেশ ভালই হয়েছিল বারবাডোজের। দুই ওপেনার ডোয়াইন স্মিথ-গাপটিলের ব্যাট থেকে ৫ ওভারে ৪৪ রান উঠে। এই জুটিতে গাপটিলের অবদান মাত্র ৭ রান। স্মিথ এদিন দেখেশুনে খেলে ৪৫ বলে ৫৮ রান করেন।

বাকি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে আর কেউ সেভাবে ব্যাটে ঝড় তোলতে না পারায় শেষ পর্যন্ত ১৮৮ রানে থামে বারবাডোজের ইনিংস। বারবাডোজের ব্যাটসম্যানদের আটকে রাখার পেছনে বড় অবদান রাখেন ক্যারিবীয় তরুণ বোলার ওবেদ ম্যাকয়। ৪ ওভার বল করে ২৮ রান খরচে ৩ উইকেট দখল করেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের এই বাঁহাতি পেসার। আরেক বাঁহাতি স্পিনার ও আফগান অনূর্ধ্ব-১৯ দলের খেলোয়াড় কাইস আহমেদ ৪ ওভারে ২৯ রান খরচে পান ২ উইকেট। ম্যাচসেরা হয়েছেন কাইরন পোলার্ড।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ