ঢাকা, রোববার 19 August 2018, ৪ ভাদ্র ১৪২৫, ৭ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ঈদ উল আযহাকে ঘিরে খুলনায় নিñিদ্র নিরাপত্তা

খুলনা অফিস : ঈদ উল আজহা উদযাপন নির্বিঘ্ন করতে পুরো খুলনাকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে। সতর্ক অবস্থানে রয়েছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। রাস্তার মোড়ে মোড়ে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। পুলিশ, র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) ও গোয়েন্দা সংস্থার বিপুল সংখ্যক সদস্যের সমন্বয়ে গড়ে তোলা হয়েছে নিরাপত্তা বলয়। ঈদের জামাতেও নিñিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নিরাপত্তা বলয় ছিন্ন করে কেউ কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে পারবে না বলে জানিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তারা।
আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ঈদের সময় দেশের তৃতীয় বৃহৎ মহানগরী খুলনার অধিকাংশ বাড়ি খালি হয়। বেশিরভাগ দোকান বন্ধ থাকে। ফাঁকা হয়ে যাওয়া খুলনার নিরাপত্তা নিশ্চিত করাই তাদের প্রধান লক্ষ্য। খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের (কেএমপি) মুখপাত্র সহকারী পুলিশ কমিশনার সোনালী সেন বলেন, ঈদ শান্তিপূর্ণ ও নির্বিঘœ করতে কেএমপির পুলিশের পক্ষ থেকে তিন স্তরবিশিষ্ট নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নেয়া হয়েছে সব ধরনের প্রস্তুতি। ৮শ’ পুলিশ সদস্য মহানগরীর নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছেন। ঈদ জামাত ও বিনোদন কেন্দ্রের মতো জনসমাগম হয় এমন সব স্থানে থাকবে কড়া নিরাপত্তা। তিনি আরও জানান, মহানগরীর একমাত্র কুরবানির পশুর হাট ও খুলনা সার্কিট হাউজ মাঠের প্রধান জামাতে যাবতীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। খুলনা জেলা পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহ বলেন, ঈদ উল আযহাকে কেন্দ্র করে জেলায় ১১শ’সদস্য দায়িত্ব পালন করছে। সাদা পোশাকেও দায়িত্ব পালন করছে পুলিশ। ঈদের জামাত, জেলার ২৬টি গরুর হাটের নিরাপত্তা দেবে তারা। ঈদ পরবর্তী সময়ে যাতে পশুর চামড়া পাচার না হয় সেজন্য পুলিশ ১২টি চেকপোস্টে দায়িত্ব পালন করবে। স্থায়ী-অস্থায়ী ৪৫০টি ঈদগাহের মধ্যে ৪০টি বড় ঈদগাহে নিরাপত্তা দেবে পুলিশ।
তিনি জানান, যানজট নিরসন ও গরু পরিবহনে কোনো ধরনের চাঁদাবাজি যেন না করতে পারে সেজন্য ট্রাফিক পুলিশও দায়িত্ব পালন করছে। মিটিং করে গুরুত্বপূর্ণ প্রয়োজন ছাড়া সীমিত করা হয়েছে জেলা পুলিশের সদস্যদের ঈদের ছুটি। পুলিশ সুপার জানান, ঈদ উপলক্ষে পরিকল্পিত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে। এ নিরাপত্তা আরও নিশ্চিত করতে পুলিশ সদস্যদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। মানুষ যাতে শান্তিতে ঈদ উদযাপন করতে পারে সে জন্যই সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ