ঢাকা, রোববার 19 August 2018, ৪ ভাদ্র ১৪২৫, ৭ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আজ পবিত্র হজ্ব শুরু কাল আরাফায় অবস্থান

স্টাফ রিপোর্টার : আজ বাংলাদেশে জিলহজ্ব মাসের ৭মতম দিবস। তবে সৌদি আরবে আজ জিলহজ্ব মাসের ৮ম দিন। আজ থেকে পবিত্র হজ্ব শুরু। আজ লাখো লাখো কণ্ঠে ‘লাব্বাইকা আল্লাহুম্মা লাব্বাইক' ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠবে মক্কা। মহান আল্লাহ তায়ালার একত্ব ও মহত্বের কথা বিঘোষিত হবে সারাক্ষণ, সারা বেলা। আল্লাহ তায়ালা এবং বান্দার মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নের অনন্য আবহে বিরাজ করবে মুসলিম উম্মাহর ঐক্য, সংহতি ও ভ্রাতৃত্বের এক অসাধারণ দৃশ্য। আজ হাজীগণ ইহরাম বাঁধা অবস্থায় ৪/৫ দিনের প্রয়োজনীয় আসবাব পত্র নিয়ে উচ্চস্বরে তালবিয়া পড়তে পড়তে মিনা অভিমুখে রওনা হবেন। কাল ফজরের নামাযের পর আরাফাত ময়দানে গিয়ে অবস্থান করতে হবে।
আজ ৮ জিলহজ্ব হাজীরা ইহরাম বাধাঁ অবস্থায় মীনায় গিয়ে অবস্থান করবেন এবং সেখানে যোহর, আছর, মাগরিব ও এশা'র নামায আদায় করবেন। রাতে মিনায় অবস্থান করা এবং ৯ জিলহজ্ব ফজরের নামায মিনায় আদায় করা সুন্নত। ৯ জিলহজ্ব আরাফার ময়দানে অবস্থান করা ফরয। আরাফার ময়দানে সূর্যাস্ত পর্যন্ত থাকতে হবে। সূর্যাস্তের পর মুযদালিফার উদ্দেশ্যে আরাফার ময়দান ত্যাগ করবেন এবং মুযদালিফায় গিয়ে মাগরিব ও এশা'র নামায এশা'র ওয়াক্তে একত্রে পড়বেন এবং সমস্ত রাত অবস্থান করবেন। মিনায় জামরাতে নিক্ষেপ করার জন্য ৭০টি কংকর এখান থেকে সংগ্রহ করবেন। মুযদালিফায় ফজরের নামায পড়ে মিনার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হবেন।
পবিত্র মক্কা থেকে প্রায় ৯ মাইল পূর্বদিকে একটি পাহাড়ের নাম ‘জাবালুর রহমত' বা রহমতের পাহাড়। এই পাহাড় সংলগ্ন দক্ষিণ-পশ্চিমে প্রলম্বিত বিরাট প্রান্তরটি আরাফাত প্রান্তর নামে পরিচিত। পাহাড়টি মধ্যম আকৃতির এবং গ্রানাইট শিলা দ্বারা গঠিত। এর উচ্চতা প্রায় ২০০ ফুট। এই পাহাড়ের পূর্বদিকে প্রস্তরের সিঁড়ি রয়েছে। এর ষষ্ঠ ধাপের উচ্চতা বরাবর আগে একটি উন্নত মঞ্চ ও একটি মিম্বর ছিল। এই মিম্বরে দাঁড়িয়ে প্রতি বছর ৯ জিলহজ্ব আরাফার দিন ইমাম সাহেব খুতবা প্রদান করতেন। এখন আর সেই মঞ্চ ও মিম্বার নেই এবং এখান হতে হজ্বের খুতবাও প্রদান করা হয় না। বরং এখন খুতবা দেয়া হয় মসজিদে নামিরা হতে। এ খুতবা মাইকের মাধ্যমে মসজিদের আশে পাশে অবস্থানরত হাজিগণ শুনতে পান। আর তখন বেশকিছু টেলিভিশনের খুতবা লাইভে প্রচার করা হয়। গোটা বিশ্বে সরাসরি পবিত্র হজ্বের খুতবা শুনতে পান। খুতবায় বেশকিছু নির্দেশনা দেয়া হয়। চলমান মুসলিম বিশ্বের নানা প্রসঙ্গ উঠে আসে এ খুতবায়। এ ছাড়াও ধর্মীয় বিভিন্ন বিধি বিধানের কথাও তুলে ধরা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ