ঢাকা, রোববার 19 August 2018, ৪ ভাদ্র ১৪২৫, ৭ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

জাতির ঈদ উদযাপন রাজনৈতিক ও সাংবিধানিক সংকটের -মকবুল আহমাদ

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর মকবুল আহমাদ পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন।
গতকাল শনিবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, কুরবাণীর মহান আদর্শ নিয়ে পবিত্র ঈদুল আয্হা আমাদের দ্বারে সমাগত। এ ঈদ আমাদের সার্বিক ত্যাগের শিক্ষা দেয়। মুসলমানদের নিকট ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আয্হা- এ দু’টি ঈদই আনন্দের দিন। এ দু’ঈদে মানুষ সকল ভেদাভেদ, হিংসা, বিদ্বেষ ভুলে গিয়ে পরস্পর পরস্পরের নিকটবর্তী হয় এবং ঈদগাহে গিয়ে নামাজ আদায় করে। দু’টি ঈদ আমাদেরকে শুধু আনন্দই দেয় না, মানুষে মানুষে ভেদাভেদ ও অনৈক্য ভুলে গিয়ে পরস্পরকে ভ্রাতৃত্ব, সম্প্রীতি এবং সৌহার্দ্যরে বন্ধনে আবদ্ধ করে সামাজিক বন্ধনকে সুদৃঢ় করে। ঈদ আমাদের ব্যক্তিগত, সামাজিক ও জাতীয়ভাবে ঐক্যের বন্ধন শক্তিশালী করে।
তিনি বলেন, ঈদুল আযহা মানুষকে ত্যাগ ও কুরবাণীর আদর্শে উজ্জীবিত করে সামাজিক, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক বৈষম্য এবং শোষণ দূর করে একটি শোষণমুক্ত ইনসাফ ভিত্তিক সমাজ গঠনের জন্য ত্যাগ স্বীকারে অনুপ্রেরণা দেয়। আমরা যদি ত্যাগের আদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়ে সকলেই বাস্তবজীবনে ইসলামী আদর্শ অনুসরণ করে সমাজে ন্যায় ও ইনসাফ কায়েম করতে পারি তাহলেই আল্ল¬াহর সন্তুষ্টি অর্জন করা সম্ভব হবে।
তিনি বলেন, ইব্রাহিম (আঃ) ও তাঁর স্ত্রী বিবি হাজেরা ত্যাগের যে মহান আদর্শ স্থাপন করে গিয়েছেন সেইভাবে আমরাও যদি আল্লাহর দ্বীনের জন্য নিজেদের প্রিয়বস্তু, ধন-সম্পদ কুরবাণি করার জন্য প্রস্তুত হতে পারি তাহলেই আমাদের কুরবাণি স্বার্থক হবে।
তিনি আরো বলেন, জাতি এমন এক সময় পবিত্র ঈদ উদযাপন করতে যাচ্ছে যখন গোটা দেশে রাজনৈতিক ও সাংবিধানিক সংকট চলছে। সারা দেশে সরকারি দলের নেতা-কর্মীরা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহযোগিতায় সন্ত্রাস, চাঁদাবাজী, হত্যা, গুম ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে দেশে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। বর্তমানে দেশে এক  নৈরাজ্যজনক অবস্থা বিরাজ করছে।
জামায়াতে ইসলামী, ইসলামী ছাত্রশিবির ও ইসলামী ছাত্রী সংস্থার বহু নেতাকর্মীকে সরকার অন্যায়ভাবে বন্দী করে রেখে কষ্ট দিচ্ছে। সরকারের সকল ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়ার জন্য তিনি দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।
পরিশেষে ঈদুল আয্হা উপলক্ষে তিনি দেশবাসী সকলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান এবং মহান আল্লাহর দরবারে দোয়া করেন, তিনি আমাদের সবাইকে সুন্দর পরিবেশে ঈদুল আয্হা উদ্যাপন করার ও এ ঈদের শিক্ষা বাস্তব জীবনে ধারণ করার তাওফিক দান করুন। সেই সাথে জামায়াতে ইসলামীর শীর্ষ নেতৃবৃন্দসহ সকল নেতা-কর্মী এবং ইসলামী ছাত্রশিবির ও ইসলামী ছাত্রী সংস্থার গ্রেফতারকৃত সকল নেতা-কর্মীকে আসন্ন ঈদের পূর্বেই মুক্তি দেয়ার জন্য তিনি সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ