ঢাকা, রোববার 19 August 2018, ৪ ভাদ্র ১৪২৫, ৭ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

মামলা চালাতে ‘ছিনতাইকারী কল্যাণ ফান্ড’!

স্টাফ রিপোর্টার : ছিনতাইকারীদের গ্রেফতারের পর আদালতে পাঠায় পুলিশ। সেখান থেকে তাদের জামিনে মুক্ত করতে ও মামলার খরচ চালাতে তৈরি করা হয়েছে ছিনতাইকারী কল্যাণ ফান্ড। ফান্ডের সদস্যরা সবাই ছিনতাইকারী বলে জানা গেছে। শুক্রবার রাজধানীর নিউমার্কেট ও যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে ৮ জন ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেয়া তথ্য নিয়ে গতকাল শনিবার দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এসব বিষয় জানায় মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মো. আবদুল বাতেন।
আব্দুল বাতেন বলেন, ছিনতাইকৃত টাকা ভাগাভাগি করে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা জমা দিয়ে তৈরি হয়েছে কল্যাণ ফান্ড। যে ফান্ডের টাকা ব্যয় হয় সহযোগীদের আদালত থেকে ছাড়িয়ে আনা ও চিকিৎসা কাজে। ছিনতাইকৃত টাকার কল্যাণ ফান্ডে আকার নেহাত কম নয়। এমনই এক ছিনতাইকারীদের কল্যাণ ফান্ডের হদিস পেয়েছে ডিএমপি’র গোয়েন্দা বিভাগ। ফান্ড থেকে উদ্ধারও হয়েছে ৮ লাখ টাকা। যা পুরোটাই ছিনতাইয়ের। গ্রেফতাররা হচ্ছেন- মো. সাজ্জাদ হোসেন সাগর, মো. আলী হাসান, সবুজ বিশ্বাস, মো. রকি নুরুজ্জামান, মোছা. মুক্তা বেগম, মোছা. বেবি আক্তার, মোছা. নুপুর, ঝুমুর ও মো. লিটন মিয়া। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহৃত ১টি মাইক্রোবাস, ১টি চাপাতি, ২টি চাকু ও ১২টি মোবাইল জব্দ করা হয়।
আব্দুল বাতেন বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ছিনতাইকারীরা বিভিন্ন ধর্মীয় উৎসবকে সামনে রেখে মার্কেটে আসা ক্রেতাদের মোবাইল ও টাকা-পয়সা ছিনতাইয়ের কথা স্বীকার করেছে। এছাড়াও তারা ঢাকা শহরের বিভিন্ন স্থানে ছিনতাই করে। তারা মাসে ৪ থেকে ৫ লাখ টাকা ছিনতাই করে থাকে। বিভিন্ন স্থানে অপরাধ সংগঠনের পর দ্রুত পালানোর জন্য তারা আটককৃত মাইক্রোবাসটি ব্যবহার করত। আসামিদের বিরুদ্ধে যাত্রাবাড়ী ও নিউমার্কেট থানায় পৃথক দুটি মামলা করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ