ঢাকা, রোববার 19 August 2018, ৪ ভাদ্র ১৪২৫, ৭ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নাজিরপুরে সড়কের বেহাল দশা উপজেলাবাসীর চরম দুর্ভোগ

পিরোজপুরের নাজিরপুর-বয়ারসিংগা ও নাজিরপুর শ্রীরামকাঠী সড়কের বেহাল দশা

নাজিরপুর (পিরোাজপুর) সংবাদদাতা : পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার বিভিন্ন সড়কে দীর্ঘদিন যাবৎ মেরামত ও রক্ষণাবেক্ষণ না হওয়ায় বেহাল দশা দেখা দিয়েছে। যার ফলে সাধারণ মানুষের যোগাযোগ ব্যাবস্থা হুমকির মুখে পড়েছে। এ উপজেলায় প্রায় ৩ লাখ লোকের বসবাস। তাদের চিকিৎসার জন্য রয়েছে একটি হাসপাতাল, একটি মহিলা কলেজ ও একটি বন্দর, যেই বন্দর থেকে উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের যে, ছোট বড় হাট-বাজার আছে ঐ বাজারগুলোর ব্যবসায়ীরা শ্রীরামকাঠী বন্দর থেকে পাইকারি মালামাল ক্রায় করে থাকেন, আর ঐ সমস্ত ক্রয় করা মালামাল উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে গাড়িতে করে নিতে হয়। তাই রাস্তাগুলো খানা খন্দকে ভরে যাওয়ায় বিভিন্ন এলাকা থেকে হাসপাতালে রোগী আসতে যেমন কষ্ট হয় তেমনি ব্যবসাইদের পড়তে হয় ভীষণ বিপদে। উপজেলা সদরের রাস্তাগুলো চলাচলে উপযোগী হলেও ইউনিয়নের বেশির ভাগ রাস্তা চলাচলের অযোগ্য। রাস্তার মাঝে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় প্রতিদিনই ঘটছে দুর্ঘটনা। তারপরেও ঝুঁকি নিয়ে সাধারণ মানুষ যানবাহনে চলাচল করছে। নাজিরপুর থেকে শ্রীরামকাঠী, নাজিরপুর থেকে বয়ারশিংগা ব্রীজ, রামনাগর থেকে শেখমাটিয়া বাজার ও রাজলক্ষী কলেজ, নাজিরপুর থেকে সাতকাছিমা বাজার, শাখারিকাঠী থেকে সাতকাছিমা বাজার, পাকুরিয়া থেকে সাচিয়া বাজার, গাওখালি থেকে ঘোষকাঠি কলেজ, এ ছারা উপজেলার বিভিন্ন রাস্তায় ছোট বড় অনেক গর্ত রয়েছে। বুইচাকাঠী গ্রামের অটো বাইক চালক মোঃ মুজিবর জানান, রাস্তার মধ্যে অনেক গর্ত থাকায় গাড়ির চাকা লিক হয়, অল্প কিছুদিন পর পর গাড়ির টায়ার পাল্টাতে হয়। ভ্যান চালক আকবর জানায়, খারাপ রাস্তার কারণে গাড়ির চাকার রিং বাঁকা হয়ে যায়। ইচ্ছে হয়না গাড়ি নিয়ে বের হতে। বাধ্য হয়ে জিবীকার টানে ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন গাড়ি নিয়ে বের হতে হয়। কিছু দিন পর পর রাস্তায় ইট পাথর দিয়ে মেরামত করা হলেও মাস যেতে না যেতেই আবার গর্ত দেখা দেয়, না হয় পিজ ঢালাই উঠে চলাচলে অনুপযোগী হয়ে যায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ