ঢাকা, রোববার 19 August 2018, ৪ ভাদ্র ১৪২৫, ৭ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সাদুল্যাপুরে স্কুলে চুরির একমাস পর মালামাল উদ্ধার চোর আটক

সাদুল্যাপুর (গাইবান্ধা) সংবাদদাতা: গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলার বুজরুক রসুলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ল্যাপটপ ও প্রজেক্টর চুরির ঘটনার একমাস পর প্রকৃত চোর মাসুম মিয়াকে আটক করেছে থানা পুলিশ। রোববার দিনগত রাতে তাকে আটক করেন। পরে চুরি যাওয়া মালামাল উদ্ধার করেছেন পুলিশ। আটক মাসুম মিয়া জামালপুর ইউনিয়নের বুজরুক রসুলপুর গ্রামের সুলতান মিয়ার ছেলে।
এদিকে স্কুলের মালামাল চুরির ঘটনায় গত ২৬ জুলাই ওই প্রতিষ্ঠানের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী আলামিন মন্ডল ও আবু বক্কর মিয়াকে সাময়িক বরখাস্ত করেছেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। অপরদিকে চুরির ঘটনার সাথে জড়িত মাসুমকে গ্রেফতারের পর বরখাস্তকৃত দুই কর্মচারীর মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। বর্তমানে বরখাস্ত প্রত্যাহারের দাবি জানান আলামিন মন্ডল ও আবু বক্কর মিয়া।
উল্লেখ্য, গত ৯ জুলাই দিনগত গভীর রাতে শ্রেণির কক্ষের দরজার হ্যাজবোল্ড ভেঙ্গে ভিতওে প্রবেশ করে। এরপর সানশেড টপকিয়ে অফিস কক্ষে ঢুকে আলমারি ভেঙ্গে দোয়েল ব্রান্ডের দু’টি ল্যাপটপ, চারটি সাউন্ড বক্স, একটি প্রজেক্টর ও প্রয়োজনী কাগজপত্র চুরি হয়। এ ঘটনার পর ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামী করে সাদুল্যাপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
সাদুল্যাপুুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বোরহান উদ্দিন বলেন, মাসুমকে আটকের পর তার স্বীকারোক্তি মূলক চুরি যাওয়া মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে। ধৃত মাসুমকে সোমবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে গাইবান্ধা জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ