ঢাকা, সোমবার 20 August 2018, ৫ ভাদ্র ১৪২৫, ৮ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

দেশে ন্যূনতম গণতান্ত্রিক পরিবেশ নেই

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) সংবাদদাতা : বিএনপির স্থায়ী কমিটির অন্যতম সদস্য ও সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিষ্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, দেশে ন্যূনতম গণতান্ত্রিক পরিবেশ নেই। পুলিশ আমাকে জানিয়েছে বাড়ি থেকে যেন বের না হই। এখন পর্যন্ত আমার ২৯ জন নেতাকর্মীকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এদের মধ্যে ১১ জন হিন্দু। পুরোনো মামলায় তাদেরকে আসামী করা হয়েছে। আমরা সব সময় চেষ্টা করছি সহনশীলতার রাজনীতি করার জন্য। আমার ষাট বছরের রাজনৈতিক জীবনে এরকম রাজনৈতিক পরিস্থিতি দেখি নাই। আমরা রাজনীতি করি জনগণের জন্য, কল্যাণের জন্য। রাজনীতি আমাদেরকে একেবারে ব্যক্তি পর্যায়ে ও নিচু পর্যায়ে নিয়ে গেছে। ১৯৫৬ সালে ১৬ বছর বয়সে আমি কারাবরণ করেছিলাম। এমন কোনো আন্দোলন নাই  যাতে আমি অংশগ্রহণ করি নাই। আমি আওয়ামী লীগ করি নাই। বঙ্গবন্ধুর আগড়তলা ষড়যন্ত্র মামলায় বিলেত থেকে আইনজীবি স্যার টমান্স উইলিয়ামকে এনেছিলাম মামলা পরিচালনা করার জন্য। আগড়তলা ষড়যন্ত্র মামলা থেকে বঙ্গবন্ধু অবিসংবাদিত নেতা হিসেবে আর্বিভূত হয়েছেন। বেগম জিয়াকে নিয়ে সমালোচনা করা ছাড়া সরকারের রাতে ঘুম হয় না। তারা ভেবেছিল বেগম জিয়াকে যদি কারাগারে রাখা যায় তাহলে বিএনপি নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। যত অত্যাচার, অবিচার, নির্যাতন, নিপীড়ন, নিষ্পেশন বিএনপিকে করা হোক না কেন, বিএনপি আগের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী। আমাদের প্রধান দাবী হলো ৩টি। তাহলো বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন। সংসদ ভেঙ্গে দিতে হবে। সংসদ রেখে নির্বাচন হতে পারে না। 
তিনি গতকাল রোববার দুপুরে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে মানিকপুরস্থ তার নিজ বাড়িতে সাংবাদিক সম্মেলনে এইসব কথা বলেন। সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, বসুরহাট পৌরসভা যুবদলের সভাপতি শওকত হোসেন সগির, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুল কবির ফয়সল, সাধারণ সম্পাদক জাহিদুর রহমান রাজন, বসুরহাট পৌর ছাত্রদলের সভাপতি ওবায়দুল হক রাফেল, সাধারণ সম্পাদক ছালা উদ্দিন সুমন, উপজেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আতোয়ার হোসেন পাবেল, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মানছুরুল হক বাবর প্রমুখ।      
ব্যারিষ্টার মওদুদ আরও বলেন, এই অযোগ্য, অথর্ব, অগ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন দিয়ে নির্বাচন হবে না। তারা ৫টি সিটি নির্বাচনে প্রমাণ করে দিয়েছে তাদের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। তাদেরকে পদত্যাগ করতে হবে। নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে। দেশে নূন্যতম গণতান্ত্রিক পরিবেশ নেই। গণতান্ত্রিক অধিকার নেই। এই সরকার ফ্যাশিবাদী সরকার, এই সরকার স্বৈরাচারী সরকার।
মওদুদ বলেন, বেগম জিয়ার মুক্তির ব্যাপারে সরকার আর কোনো আইনী হস্তক্ষেপ না করলে, এই মাসের মধ্যে বেগম জিয়া মুক্তি পাবেন। নিম্ন আদালতে ক্ষমতা চলে গেছে নির্বাহী বিভাগে কাছে। নিম্ন আদালতের বিচারকরা সরকারের নিয়ন্ত্রনে। সে জন্য বেগম জিয়ার মুক্তি লাভে বিলম্ব হচ্ছে। যে দিন বেগম জিয়া মুক্তি পাবেন। সে দিন বাংলাদেশের গণজোয়ার সৃষ্টি হবে। সরকারের ১০ বছরের অপশাসনের পুঞ্জিভূত ক্ষোভের বিষ্ফোরণ ঘটবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ