ঢাকা, মঙ্গলবার 21 August 2018, ৬ ভাদ্র ১৪২৫, ৯ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

দেশে ফিরলো নারী ফুটবল দল

স্পোর্টস রিপোর্টার : সাফ অনর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে রানার্স-আপ হয়ে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলকে বিমানবন্দরে স্বাগত জানান বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের কর্মকর্তাগণ। ফুটবলার ও কর্মকর্তাদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়ার পাশাপাশি মিষ্টি মুখ করানো হয়।বিমানবন্দরে বাংলাদেশ দলের কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটন বলেন, ‘ফুটবলে খারাপ দিন যায়। ভারতের বিপক্ষে আমি মনে করি খারাপ দিন গিয়েছে। কিন্তু আমাদে মেয়েরা যে উন্নতি করেছে সেটা যারা খেলা দেখেছে তারা সবাই দেখেছে। মেয়েদের খেলা দেখে সবাই বেশ খুশি হয়েছে। শিরোপা ধরে রাখতে পারিনি এটা আমাদের দুর্ভাগ্য। আমাদের মেয়েরা তাদের সেরাটা দিয়ে খেলেছে এবং তাদের পারফরম্যান্স দিয়ে ভুটানের জনগণের মন জয় করেছে।’ অধিনায়ক মারিয়া মান্ডা মনে করেন এটা তাদের জন্য নতুন শিক্ষা। নতুন অভিজ্ঞতা। এমন অভিজ্ঞতা তাদের আগে হয়নি, ‘আসলে ফাইনালে হারের অভিজ্ঞতা আমাদের ছিল না। 

বাংলাদেশ শিরোপা না জিতলেও দুর্দান্ত পারফরম্যান্স উপহার দিয়ে সবার মন জয় করেছে। জিতেছে ফেয়ার প্লে ট্রফি। অন্যদিকে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন বাংলাদেশের স্ট্রাইকার তহুরা খাতুন। ভারতের বিপক্ষে ফাইনালে তিনি বেশ কয়েকটি সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু কোনোটিই কাজে লাগাতে পারেননি। সেটা নিয়ে এখনো তার আপসোস হচ্ছে, ‘আমি সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছি। তবে আমাদের দল যদি চ্যাম্পিয়ন হত তাহলে আরো খুশি হতাম। ফাইনালে আমি নিজেও অনেক মিস করেছি। তাই আমার নিজের কাছেও খারাপ লাগছে। যেগুলো অন্যান্য সময় গোল হয়েছে সেগুলো সেদিন বারে লেগে ফিরে এসেছে। দুর্ভাগ্য আমাদের।’সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় আসরে বাংলাদেশ পড়েছিল ‘বি’ গ্রুপে। সেখানে তাদের প্রতিপক্ষ ছিল পাকিস্তান ও নেপাল। প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানকে ১৪-০ গোলে হারায় বাংলাদেশ। এরপর দ্বিতীয় ম্যাচে নেপালকে হারায় ৩-০ ব্যবধানে। ফলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিফাইনালে ওঠে। সেমিফাইনালে স্বাগতিক ভুটানকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে ওঠে। শনিবার অনুষ্ঠিত ফাইনালে ভারতের কাছে ১-০ ব্যবধানে হেরে যায় তহুরা-মারিয়ারা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ