ঢাকা, মঙ্গলবার 21 August 2018, ৬ ভাদ্র ১৪২৫, ৯ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

খুলনায় মেঘনা অয়েলের ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডে দুইজন নিহত ॥ দগ্ধ ৯

খুলনা অফিস : খুলনা মহানগরীর খালিশপুরের নতুন রাস্তা বিএল কলেজ সংলগ্ন মেঘনা অয়েল কোম্পানিতে অগ্নিকা-ে দুইজন নিহত ও ৯ জন অগ্নিদ্বগ্ধ হয়েছে। অগ্নিদগ্ধেদর মধ্যে তিনজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য  এয়ার এম্বুলেন্সে ঢাক নেয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা পৌণে ১১টার দিকে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনাটি ঘটে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ট্যাংকলরি কর্মী, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স খালিশপুর ও খুলনার পাঁচটি ইউনিট প্রায় পৌণে এক ঘণ্টা চেষ্টার পর সাড়ে ১১টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। মেঘনা ডিপোর একটি ডিজেল পাম্প ব্যতীত অন্য পাম্প বন্ধ রয়েছে। দুই জনের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমেছে।
মেঘনা অয়েল কোম্পানি ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ট্যাংকলরিতে তেল দেয়ার সময় অপারেটিং নজেল হাত থেকে নিচে পড়ে যায়। এ সময় আগুনের সূত্রপাত হয়। পরে পুরো অপারেটিং শেডে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে কাশিপুর পদ্মা রোডের বাসিন্দা ট্যাংকলরিকর্মী মো. রাজু (২৫) ও মেঘনা অয়েলের মিটারম্যান মো. কামাল (৫০) নিহত হয়।  দ্বগ্ধ সাতজনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। দ্বগ্ধদের মধ্যে রয়েছে-মোজাম্মেল হক (৩৫), আবদুল ওহাব (৪৫), আনোয়ার হোসেন (৪০), আনোয়ার হোসেন অনু (২৫), ইসমাইল হোসেন (৫৫), রুবেল মীর (২৬) ও মো. সুজন (২৫)। আশঙ্কাজনক অবস্থা হওয়ার কারণে শেষে তিন জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ট্যাংলরীতে তেল দেয়ার সময় গ্যাসের চাপে ট্যাংক বাস্ট হয়ে অগ্নিকান্ডের সময়  তেল অপারেটিং শেডের সর্বত্র আগুন মূহুর্তে ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে কাশিপুর পদ্মারোডের রাজু ( ২৫) ও কামাল (৫০) নামে একজন মিটার ম্যান মারা যায়। দগ্ধ হয় ৯জন। আহতদের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভার্তি করা হয়। মেঘনা  ডিপো ইনচার্জ জিয়াউর রহমান জানান দুপুরে মেঘনা কর্মচারী ইসমাইল, ট্যাংকলরী শ্রমিক রুবেল ও সুজনের অবস্থা অবনতি হলে তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য  এয়ার এম্বুলেন্সে ঢাক নেয়া হয়।
ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স খুলনার সহকারী পরিচালক রেজাউল করিম জানান, বেলা পৌণে ১১টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণ করার পর ঘটনাস্থল থেকে অগ্নিদ্বগ্ধ দু’জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। আরও সাত জনকে অগ্নিদ্বগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি আরো জানান, আগুন নিয়ন্ত্রেণে আনতে সক্ষম হয়েছে ফায়ার কর্মীরা। অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারন এখনও সম্ভব হয়নি।
ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এনাম মুন্সি জানান, ডিপো থেকে ডিজেল ও অকটেন গাড়িতে তোলার সময় হঠাৎ বিস্ফোরণ ঘটে। তখন আগুনও ছড়িয়ে পড়ে।
মেঘনা অয়েল কোম্পানির ডিপো ইনচার্জ জিয়াউর রহমান জানান, অগ্নিকান্ডের ঘটনায় দু’জন নিহত হয়েছে। অগ্নিদ্বগ্ধদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে খালিশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরদার মোশারফ হোসেন বলেন, ‘হতাহতদের উদ্ধার ও আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শেষ হয়েছে। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ