ঢাকা, মঙ্গলবার 21 August 2018, ৬ ভাদ্র ১৪২৫, ৯ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

শিক্ষকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়েরের অভিযোগ

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) সংবাদদাতা: বরিশালের আগৈলঝাড়ায় মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়েরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাগধা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জুরান চন্দ্র সরকার (শীল) ও তার দুই ভাইকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষ প্রবাসী এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এঘটনায় ওই এলাকায় উত্তেজনা ও ক্ষোভ বিরাজ করছে। এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পশ্চিম বাগধা গ্রামের মৃত জিতেন্দ্রনাথ হালদারের ছেলে প্রবাসী বিমল হালদার এর সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ প্রতিবেশি ননী শীল, ধীরেন শীল এর সাথে জায়গা জমির বিরোধ চলে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৬ আগস্ট রাতে বিমলের ঘরের তালা ভেঙ্গে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা ঘরে প্রবেশ করে বিমল হালদার (৭০) ও তার স্ত্রী আলোমতি হালদার (৬৫) কে মারধর করে। এঘটনায় বিমল হালদারের স্ত্রী আলোমতি হালদার বাদী হয়ে ঘটনার ১৩দিন পরে ৮ সেপ্টেম্বর মারধর ও ভয়-ভীতির অভিযোগ এনে ননী শীল, ধীরেন শীল ও তার ভাই বাগধা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জুরান চন্দ্র সরকার (শীল)কে আসামী করে আগৈলঝাড়া থানায় মামলা দায়ের করে। মিথ্যা মামলা দায়েরের পরই এলাকায় উত্তেজনা ও ক্ষোভ দেখা দেয়। মামলায় চারজন স্বাক্ষী মানা হলেও ১নং স্বাক্ষী বাদীর স্বামী প্রবাসী বিমল হালদার। অন্য সাক্ষী স্থানীয় মোশারেফ সরদার, কাইউম তালুকদার ও লিয়াকত আলী খলিফা তারা এই মামলার বিষয়ে কিছুই জানেননা বলে সাংবাদিকদের জানান। স্থানীয় ইউপি সদস্য মিন্টু মিয়া ও প্রাক্তন ইউপি সদস্য আঃ রহিম সরদার মামলাটি ভিত্তিহীন বলে জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ