ঢাকা, শনিবার 17 November 2018, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ক্ষমতা হারালেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:

দলের ভেতরের বিদ্রোহে ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ালেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুল। দেশটির সাবেক অর্থমন্ত্রী স্কট মরিসনকে অস্ট্রেলিয়ার পরবর্তী সরকারপ্রধান হিসেবে বেছে নিয়েছে ক্ষমতাসীন জোটের প্রধান দল লিবারেল পার্টি।

দুর্বল নির্বাচন, নির্বাচনে কারসাজি এবং কট্টরপন্থী এমপিদের বিদ্রোহের কারণে নেতৃত্ব নিয়ে চ্যালেঞ্জের মুখে ছিলেন।গত কয়েকদিন ধরেই নানা নাটকীয়তার মধ্যে টার্নবুলের পদ খোয়ানোর বিষয়টি বৃহস্পতিবার রাতেই অনেকটা নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল।

শুক্রবার সকালে লিবারেল পার্টির নেতৃত্ব নির্বাচনের ভোটাভুটিতে ত্রিমুখী লড়াইয়ের জয়ী হন টার্নবুলের ঘনিষ্ঠ সহযোগী মরিসন। তিনি আজ শুক্রবার দলের অভ্যন্তরীণ নির্বাচনে ৪৫-৪০ ভোটে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পিটার ডাটনকে পরাজিত করেন।

নতুন প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন

টার্নবুলের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে অভিবাসন ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন পিটার ডাটন এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলি বিশপ।

সাম্প্রতিক উপ-নির্বাচনগুলোতে দলের বাজে ফল এবং দলের ভেতরে রক্ষণশীল অংশের বিদ্রোহে গত কয়েকটি দিন প্রবল চাপ আর চ্যালেঞ্জের মুখে পড়া টার্নবুল আর শুক্রবারের ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নামেননি।

অস্ট্রেলিয়ার চলমান রাজনৈতিক নাটকীয়তার শুরু গত সপ্তাহে। মঙ্গলবার বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুলকে চ্যালেঞ্জ করেন পিটার ডাটন। কিন্তু জিতে যান টার্নবুল। মন্ত্রিত্ব ছাড়েন ডাটন। পদত্যাগ করেন ১৩ জনের মতো মন্ত্রী। দলের প্রধান নেতা নির্বাচন নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। আবারও টার্নবুলকে চ্যালেঞ্জ করার সিদ্ধান্ত নেন ডাটন।

বৃহস্পতিবার টার্নবুল ঘোষণা দেন, প্রধানমন্ত্রী পদে বহাল থাকতে আর কোনও চ্যালেঞ্জে যাবেন না। ওই সময় ডাটনের বিরুদ্ধে নেতৃত্বের লড়াইয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণের ঘোষণা দেন স্কট মরিসন। পরে জুলি বিশপ নামে দলের আরেক নেতা প্রার্থী হন। 

প্রধানমন্ত্রীর পদ খোয়ানো টার্নবুল এখন পার্লামেন্টে থেকেও সরে যেতে পারেন বলে ইংগিত দিয়ে রেখেছেন। সেক্ষেত্রে তার সিডনির আসনে উপনির্বাচনের মোকাবেলা করতে হবে লিবারেল পার্টি নেতৃত্বাধীন নতুন সরকারকে। আর ওই উপনির্বাচনে হারলে লিবারেল পার্টির এক আসনের সংখ্যাগরিষ্ঠতা আর থাকবে না। তখন আবার শুরু হতে পারে নতুন জটিলতা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ