ঢাকা, শনিবার 25 August 2018, ১০ ভাদ্র ১৪২৫, ১৩ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অভিশংসনের উদ্যোগে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক পরিণতি হবে ভয়াবহ ------------------- ট্রাম্প

২৪ আগস্ট, ফক্স নিউজ, আনাদোলু : অভিশংসনের কোনও উদ্যোগ যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ভয়াবহ অর্থনৈতিক পরিণতি বয়ে আনবে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন সংবাদমাধ্যম দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প এই কথা বলেন। তিনি বলেন, যদি আমি কখনও অভিশংসিত হই, আমার মনে হয় তাহলে বাজারে ধস নামবে। সবাই তখন গরীব হয়ে যাবে বলে আমি মনে করি। তিনি আরও বলেন, ‘আমি জানি না, আপনারা কিভাবে একজন মানুষকে অভিশংসন করবে যে কিনা ভাল কাজ করছে।’

আগামী নভেম্বরের মধ্যবর্তী নির্বাচনে আবার জয়লাভ করলে ডেমোক্র্যাটরা তার অভিশংসনের প্রস্তাব আনতে পারে এমন জল্পনা সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে ট্রাম্প এই কথা বলেন। তবে ট্রাম্পের দীর্ঘ দিনের ব্যক্তিগত আইনজীবী মাইকেল কোহেন সম্প্রতি এক জেলা জজের কাছে যে জবানবন্দি দিয়েছেন তাতে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এই প্রস্তাবের সম্ভাবনা বাড়িয়ে দিয়েছে। কোহেন জবানবন্দিতে স্বীকার করেছেন যে, ট্রাম্পের নিন্দেশেই ২০১৬ সালের নির্বাচনের আগে দুই পর্নোতারকাকে অর্থ দিয়েছিলেন তিনি। শর্ত ছিল, ট্রাম্পের সঙ্গে সম্পর্কের কথা তিনি প্রকাশ করবেন না। এভাবে অর্থ দেওয়া প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অর্থায়নের আইন লঙ্ঘনের পাশাপাশি নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টা হিসেবে দেখা হচ্ছে। তবে জবানবন্দিতে কোহেন কোনও নারীর বা সরাসরি ট্রাম্পের নাম উল্লেখ করেননি। তিনি ট্রাম্পকে ‘একজন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

তবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ওই দুই নারীর সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। তিনি ও তার দলের পক্ষ থেকে এই লেনদেনের আগে কোনও কিছু জানার কথাই অস্বীকার করেছে। তবে কোহেনের সাক্ষ্য ও ট্রাম্পের প্রচারণা দলের সাবেক প্রধান পল ম্যানফোর্টের বিরুদ্ধে আর্থিক কেলেঙ্কারির ৮টি অভিযোগ ডেমোক্র্যাটদের অনুপ্রেরণা দিতে পারেন। তারা প্রেসিডেন্টকে অভিশংসনের প্রস্তাব দিতে পারেন। তবে প্রেসিডেন্টের অভিশংসন হওয়ার জন্য সিনেটের দুই-তৃতীয়াংশ সদস্যকে প্রস্তাবের পক্ষে অবস্থান নিতে হবে।

সাক্ষাৎকারে কোহেনের সঙ্গে নিজের সম্পর্কের মাত্রা বোঝাতে গিয়ে ট্রাম্প বলেন, সে তার কাছে খণ্ডকালীন কাজ করতো। তিনি বলেন, সে আমার অনেক আইনজীবীর একজন ছিলেন। তিনি আরও বলেন, সে আমার আইনজীবী ছিল, এটা কোনও বড় ব্যাপার নয়। এটা সামান্য ব্যাপার। সে আমার এমন কোনও ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি নন।

সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প তার প্রচারণা দলের প্রধান পল ম্যানফোর্টের প্রশংসা করেন। অভিযোগগুলো প্রমাণিত হলে ৬৮ বছর বয়সী ম্যানফোর্টের ৮০ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে। তবে ট্রাম্প তাকে ক্ষমা করে দেবেন কিনা সে বিষয়ে কিছুই বলেননি। তবে রিপাবলিকান সিনেটর লিন্ডে গ্রাহাম ম্যানফোটকে ক্ষমা করার বিষয়ে সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, তিনি মনে করেন না এতে কারও ভাল হবে। গ্রাহাম বলেন, এই পরিস্থিতিতে এমন ক্ষমার ঘটনা মার্কিনিদের তদন্তে ব্যাঘাত ঘটাতে উদ্বুদ্ধ করবে।

ক্রমবর্ধমান চাপের মুখে ট্রাম্প তার শীর্ষ আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশনের সমালোচনা করেছেন। তার অভিযোগ সেশন কখনও বিচার বিভাগের নিয়ন্ত্রণ নিতে পারেননি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ