ঢাকা, সোমবার 27 August 2018, ১২ ভাদ্র ১৪২৫, ১৫ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কবি নজরুল ইসলামের ৪২তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

স্টাফ রিপোর্টার : আজ ২৭ আগস্ট সোমবার জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪২তম মৃত্যুবার্ষিকী। বাংলা সাহিত্যে বিদ্রোহী কবি হিসেবে পরিচিত হলেও তিনি ছিলেন একাধারে কবি, সংগীতজ্ঞ, ঔপন্যাসিক, গল্পকার, নাট্যকার, প্রাবন্ধিক, সাংবাদিক, চলচ্চিত্রকার, গায়ক ও অভিনেতা। ১৯৭৬ সালের এদিনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (সাবেক পিজি হাসপাতাল) শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। 

পরে কবিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় কবর দেওয়া হয়। জাতীয় কবি নজরুল বঙ্গাব্দ ১৩০৬ সালের ১১ জ্যৈষ্ঠ পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার চুরুলিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার ডাকনাম ‘দুখু মিয়া’। পিতার নাম কাজী ফকির আহমেদ ও মাতা জাহেদা খাতুন। 

স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের ২৪ মে ভারত সরকারের অনুমতিক্রমে সপরিবারে নজরুলকে বাংলাদেশে নিয়ে আসেন। জাতীয় কবির মর্যাদা দিয়ে বাংলাদেশে তার বসবাসের ব্যবস্থা করেন। বঙ্গবন্ধু ধানমন্ডিতে কবির জন্য একটি বাড়ি বরাদ্দ করেন।

প্রিয় কবির মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভাসহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান। এরমধ্যে বিস্তারিত কর্মসূচি পালন করবে কবি নজরুল ইনস্টিটিউট। দিনটি উপলক্ষ্যে নানা অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচার করবে ইলেট্রনিক মিডিয়া। 

আজ সোমবার সকাল ৭টায় কবির সমাধিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণের দিবসটি পালনের কর্মসূচি শুরু হবে। এরপর বিকেল সাড়ে ৪টায় বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের বেগম সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে রয়েছে আলোচনাসভা- নজরুল পুরস্কার ২০১৭’ প্রদান ও সাংস্কৃতিক পরিবেশনা।

কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু  এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব মো. নাসির উদ্দিন আহমেদ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্র-ভিসি অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করবেন কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য কবিপৌত্রী খিলখিল কাজী। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করবেন কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক মো.আব্দুর রাজ্জাক ভূঞা।

সাংস্কৃতিক পরিবেশনায় একক সঙ্গীত পরিবেশন করবেন ইয়াকুব আলী খান, ড. লীনা তাপসী খান, ছন্দা চক্রবর্তী, নার্গিস পারভিন বনি, লুৎফুন্নাহার পাখি, গোলজার হোসেন উজ্জল, সুদাম কুমার বিশ্বাস। আবৃত্তি করবেন লায়লা তারান্নুম কাকলী, পত্রপাঠে অংশ নিবেন স্নিগ্ধা বাউল। এছাড়া দলীয় সংগীত পরিবেশন করবেন কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের প্রশিক্ষণার্থী ও আজনবী সংগীত একাডেমির শিল্পীবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে ‘নজরুল পুরস্কার ২০১৭’ প্রদান করা হবে। এ বছর নজরুল -সংগীতে অবদানের জন্য পুরস্কার পাচ্ছেন খায়রুল আনাম শাকিল, নজরুল -সংগীত গবেষণায় প্রফেসর ড. রশিদুন নবী। পুরস্কার হিসেবে ১ লাখ টাকা, ক্রেস্ট এবং সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে বলে জানিয়েছেন নজরুল ইনস্টিটিউটের উপ-পরিচালক রেজাউদ্দিন স্ট্যালিন।

তিনি জানান, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের সাহিত্যকে সারাদেশের মানুষের কাছে ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে কবি নজরুল ইনিস্টিটিউট। তারই ধারাবাহিকতায় আগামী মাসে সাতক্ষীরা ও নড়াইলে জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

জাতীয়  কবির মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে  গ্রহণ করা হয়েছে বিস্তারিত কর্মসূচি। বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে আজ বাদ ফজর বিশ্ববিদ্যালয়ের মসজিদুল জামিয়ায় কোরআন খানি হবে। এছাড়া সকাল ৭ টায় অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে ছাত্রছাত্রী শিক্ষক কর্মকর্তা ও কর্মচারী গণ জমায়েত হবেন। সেখান থেকে তারা সকাল সোয়া ৭টায় শোভাযাত্রাসহকারে কবির কবরে পুস্পস্তবক অর্পণ ও সুরা ফাতেহা পাঠ করবেন। পরে কবির কবর প্রাঙ্গণে আলোচনা সভাও অনুষ্ঠিত হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ