ঢাকা, সোমবার 27 August 2018, ১২ ভাদ্র ১৪২৫, ১৫ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ভারতের সংবিধানের ৩৫-এ ধারায় রদবদল হওয়া উচিত নয় ---------মণিশঙ্কর আইয়ার

২৬ আগস্ট, পার্সটুডে : ভারতের সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও কংগ্রেসের সিনিয়র নেতা মণিশঙ্কর আইয়ার বলেছেন, সংবিধানের ৩৫-এ ধারায় কোনোভাবেই রদবদল হওয়া উচিত নয়। সঠিক চিন্তাভাবনা করা কোনো ব্যক্তিই একে পরিবর্তন করার কথা ভাবতে পারে না।

মণিশঙ্কর আইয়ার গত শনিবার জম্মু-কাশ্মীরের গ্রীষ্মকালীন রাজধানী শ্রীনগরে ‘সেন্টার ফর পিস অ্যান্ড প্রগ্রেস’ নামক সংস্থা আয়োজিত সভায় ভাষণ দেয়ার সময় ওই মন্তব্য করেন।

৩৫-এ ধারায় কাশ্মীরের স্থায়ী বাসিন্দাদের বিশেষ অধিকার ও সুবিধা রয়েছে।

মণিশঙ্কর আইয়ার বলেন, ‘৩৫-এ ধারা আমাদের সংবিধানের অংশ, তাকে বাতিল করার কোনো চেষ্টাই করা উচিত নয়। কিছু লোক ইচ্ছাকৃতভাবে এ ব্যাপারে উসকানি দিচ্ছে। ৩৫-এ ধারা পরিবর্তনের মানে হল জাতীয় স্বার্থের ক্ষতিসাধন করা। আমার আশা, সুপ্রিম কোর্ট এ ব্যাপারে যে সিদ্ধান্তই দিক তা জাতীয় স্বার্থের কথা মাথায় রেখেই দেবে।’

তিনি বলেন, ‘ওই সাংবিধানিক ব্যবস্থাকে বজায় রাখা প্রয়োজন যাতে জম্মু-কাশ্মিরের জনগণের মনে কোনো আশঙ্কা না হয় যে, গত ৯০ বছর ধরে তাদের যে সুবিধা ও অধিকার আছে তা কেউ ছিনিয়ে নিতে চাচ্ছে।’

মণিশঙ্কর আইয়ার কাশ্মির ইস্যুতে সংলাপ প্রক্রিয়ায় হুররিয়াত কনফারেন্সকে শামিল করার উপরে গুরুত্ব আরোপ করেছেন।

এদিকে, গতকাল শনিবার পুঞ্চ জেলার মেন্ধরে ৩৫-এ ধারা রক্ষার দাবিতে সর্বাত্মক বন্ধ পালিত হয়েছে। ন্যাশনাল কনফারেন্সের পক্ষ থেকে ওই বনধকে কেন্দ্র করে এক সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

২০১৪ সালে আরএসএস প্রভাবিত এক বেসরকারি সংগঠন সুপ্রিম কোর্টে জম্মু-কাশ্মির থেকে ৩৫-এ ধারা বাতিল করার আবেদন জানায়। সেই থেকে ওই ধারায় হস্তক্ষেপ করার অভিযোগে তীব্র বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।

৩৫-এ ধারা অনুযায়ী, রাজ্যের স্থায়ী বাসিন্দা ছাডা কেউ সেখানকার সম্পত্তি বেচাকেনা করতে পারেন না। স্থায়ী বাসিন্দাদের জন্য সরকারি চাকরি এবং স্কলারশিপ সংরক্ষিত থাকে। কোনো কাশ্মিরি নারী ভিন রাজ্যের কাউকে বিয়ে করলে তিনি রাজ্যে বিষয়-সম্পত্তির মালিকানার অধিকার থেকে বঞ্চিত হন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ