ঢাকা, সোমবার 27 August 2018, ১২ ভাদ্র ১৪২৫, ১৫ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

১৯ কিলো রাস্তা এলজিইডি থেকে সড়ক জনপথে নেয়ার দাবি

নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) সংবাদদাতা: দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ বিরামপুর, হাকিমপুর, ঘোড়াঘাট উপজেলায় আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে রাস্তাঘাট ব্রিজ কালভার্ট সহ অবকাঠামো উন্নয়ন একের পর এক এগিয়ে চলেছে। 

এ সরকারের আমলেই বৃহত্তর রংপুর ও গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর এলাকার যোগাযোগ উন্নয়নে কাচদহ করতোয়া নদীতে ডা. ওয়াজেদ মিয়া সেতু নির্মিত হয়েছে। এছাড়াও কাচদহ সেতু থেকে নবাবগঞ্জ সদর পর্যন্ত সড়ক জনপদের অধীনে রাস্তাটি সম্প্রসারণ সহ নতুন করে নির্মান করা হয়েছে। 

বর্তমানে নবাবগঞ্জ উপজেলার সাথে রংপুর জেলার সহ গাইবান্ধা যাতায়াত সহজ হয়েছে। নবাবগঞ্জ থেকে শালখুরিয়া ইউনিয়নের তিখুর দলারদরগা হয়ে বোয়ালদারের ভিতর দিয়ে হাকিমপুরে পৌছতে ১৯ কিলোমিটার এই রাস্তাটি এলজিইডির অধীনে রয়েছে। এলাকাবাসী জানায়, সড়কটি জনগুরুত্বপূর্ণ হলেও মাত্র ১২ ফিট প্রস্থ হওয়ায় প্রায়শই গাড়ি পারাপারে জনগণের হয়রানি সহ সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন অনেক পদচারী। এই সড়কটি সড়ক জনপথ অধিদপ্তরের হস্তান্তর করা হলে প্রস্থে ২৪ কিলোমিটার সম্প্রসারণ করে রাস্তাটির কার্পেটিং করা হলে বৃহস্তর রংপুর গাইবান্ধার লোকজন নবাবগঞ্জ সদর হয়ে হিলি সীমান্ত উপজেলার হাকিমপুরে যাতায়াত করতে পারবে সহজে। এলাকার সচেতন ব্যক্তিবর্গ সহ শালখুরিয়া সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মো. আজাদ রহমান জানান, এলজিইডি থেকে রাস্তাটি সড়ক জনপথে নেয়া হলে উপকৃত হবে এলাকার জনসাধারন। এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের (ভারপ্রাপ্ত) চেয়ারম্যান মোছা. পারুল বেগমের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, রাস্তাটি প্রসস্ত করণ সহ সড়ক জনপথের মাধ্যমে সম্প্রসারন করা প্রয়োজন। এ বিষয়ে দিনাজপুর সড়ক জনপথ অধিদপ্তরের উপ-সহকারি প্রকৌশলী মো. তরিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এলজিইডি থেকে সড়ক জনপথে রাস্তাটি আসলে নির্মাণ কাজ করা সম্ভব হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ