ঢাকা, মঙ্গলবার 28 August 2018, ১৩ ভাদ্র ১৪২৫, ১৬ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ইসলামী শ্রমনীতির সুফল শ্রমিক অঙ্গনে পৌঁছাতে নেতৃবৃন্দকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে -অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার

গতকাল সোমবার শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের জেলা সভাপতি সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার

বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার বলেছেন, সমাজের শোষণ-বঞ্চনা, জুলুম-নিপীড়ন থেকে মুক্তির জন্য শ্রমজীবী মানুষের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। কিন্তু শ্রমজীবী মানুষ সমস্যা সমাধানের পথ অন্বেষণ করে কার্যত ব্যর্থ হচ্ছে। একের পর এক মানবীয় মতবাদের পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে, মুক্তির কোনো লক্ষণ নেই। এর মূল কারণ আল্লাহর নির্দেশিত শাশ্বত, সত্য, সুন্দর, কল্যাণ ও ভ্রাতৃত্ববোধের অনুপম আদর্শ ইসলামী শ্রমনীতি থেকে বিমুখতা। তিনি বলেন, ইসলামী শ্রমনীতির বিধান পরিহার করে কোনোভাবেই শ্রমজীবী মানুষের ইনসাফ প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয়। তাই শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন রাসুলের পথ অনুসরণ করে পূর্নাঙ্গ একটি ইসলামী শ্রমনীতির বিপ্লব সংঘটিত করার প্রয়াসে ময়দানে সংগ্রাম করে যাচ্ছে। সৎ ও দুর্নীতিমুক্ত ট্রেড ইউনিয়নের মাধ্যমে ইসলামী শ্রমনীতির সুফল  শ্রমিক অঙ্গনে পৌছে দিতে দায়িত্বশীলদের অগ্রণী ভুমিকা পালন করতে হবে।
গতকাল সোমবার শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের জেলা সভাপতি সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই কথা বলেন। সম্মেলনে ঢাকা মহানগরী উওর ও দক্ষিণ, চট্টগ্রাম মহানগরী, কুমিল্লা মমহানগরী, নারায়নগঞ্জ মহানগরী, গাজীপুর মহানগরী, ঢাকা অঞ্চল, চট্টগ্রাম অঞ্চল, ফরিদপুর অঞ্চল,সিলেট অঞ্চল সহ বিভিন্ন জেলা ও মহানগরী  সভাপতিগন উপস্থিত ছিলেন। ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক হারুন অর রশিদ খানের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জামায়াত ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও কুমিল্লা মহানগরী আমীর কাজী দ্বীন মোহাম্মদ, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা জামায়াতের আমীর আব্দুস সাত্তার, ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও চট্টগ্রাম মহানগরী সভাপতি আবু তাহের খান, কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মাস্টার আমিনুল ইসলাম। আরো উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য সহ-সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. মজিবুর রহমান ভূইয়া, সহ-সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের সভাপতি লস্কর মোহাম্মদ তসলিম, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও সহ-সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য মনসুর আহমদ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সভাপতি মোঃ আব্দুস সালাম, কেন্দ্রীয় প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ আজহারুল ইসলাম, অফিস সম্পাদক আবুল হাসেম, সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর হাসান রাজু, কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়ন সম্পাদক এস এম লুৎফর রহমান। সম্মেলনে বিগত ৬ মাসের কাজের রিপোর্ট, ট্রেড ইউনিয়ন বৃদ্ধি ও বিভিন্ন পেশাভিত্তিক ট্রেডের কাজের পর্যালোচনা করা হয়।
তিনি দায়িত্বশীলদের উদ্যেশ্য করে আরো বলেন, নিছক বক্তৃতা-বিবৃতি বা আবেগের জোরে জুলুম-নিপীড়ন আর জাহেলিয়াতের অবসান করে ইসলামী শ্রমনীতির বিপ্লব সাধন সম্ভব নয়। আধুনিক জাহেলিয়াতের যুগে ইসলামী শ্রমনীতি পরিপূণ রূপে প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম-কাজ সত্যিই কঠিন ও সংঘাতমুখর। বাতিল অত্যান্ত- সুসংগঠিত ও এক সুনিপুণ সূক্ষ্ম পরিকল্পনায় সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে অনুপ্রবেশের মাধ্যমে আপন ভিতকে মজবুত করে জেঁকে বসেছে। আল্লাহদ্রোহী জাহেলি শক্তির বিরুদ্ধে সংগ্রামমুখর পথচলা একটি প্রচ- চ্যালেঞ্জ। বাতিলের প্রতিটি ষড়যন্ত্র-কূটকৌশল আর চ্যালেঞ্জকে মোকাবিলা করে ইসলামী শ্রমণীতির সংগ্রামের বিজয়কে অবশ্যম্ভাবী করে তোলার জন্য বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের প্রতিটি দায়িত্বশীলকে ট্রেড ইউনিয়ন গঠনে হতে হবে এই পথের উৎসর্গীকৃত প্রাণ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ