ঢাকা, বুধবার 29 August 2018, ১৪ ভাদ্র ১৪২৫, ১৭ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নীলফামারীতে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ ফুটবলপ্রেমীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া

নীলফামারী সংবাদদাতা : টিকিট সংকটে পড়েছেন নীলফামারীর ফুটবল ভক্তরা। টিকিট নিয়ে চলছে কাড়াকাড়ি। জেলা সদরের দশটি ব্যাংকের মাধ্যমে টিকিট বিক্রি করা হলেও চাহিদা অনুযায়ী কাঙ্খিত টিকিট পাচ্ছেন না তারা। এদিকে টিকিট ক্রেতাদের ভিড় সামলাতে হিমসিম থেতে হচ্ছে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে।  ২৯ আগস্টের ম্যাচটিকে ঘিরে নীলফামারীসহ এ অঞ্চলের মানুষের মধ্যে ব্যাপক আনন্দ-উদ্দিপনা সৃষ্টি হয়েছে। বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচটি উপলক্ষে শহরের বিভিন্ন এলাকায় করা হয়েছে সাজ-সজ্জা।

প্রথম বারের মতো আন্তর্জাতিক ম্যাচ উপভোগে উৎসাহের যেনো কমতি নেই নারীদের মাঝেও। তাই টিকিট সংগ্রহ করছেন তারাও। বিক্রেতারা বলছেন, পুরুষদের পাশাপাশি নারীদেরও বেশ আগ্রহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। নীলফামারী স্টেডিয়ামে টিকিট সংগ্রহ করতে আসা সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী চায়না বেগম বলেন, সচারচর ঢাকায় এ ধরনের বড় ম্যাচ অনুষ্ঠিত হলেও এবার নীলফামারীতে হচ্ছে। এ জন্য আমরা গর্বিত। ঘরের মাঠে বসে উপভোগ করতে পারবো ম্যাচ।  জেলার ছয় উপজেলার দশটি ব্যাংকের মাধ্যমে ২৬ আগস্ট থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হয়। প্রথম দিন থেকেই টিকিট সংগ্রহে হুমড়ি খেয়ে পড়ে ফুটবল প্রেমিরা। প্রতিটি ব্যাংকের সামনে ভোর থেকে পড়ে যায় দীর্ঘ লাইন। দু-তিন ঘন্টার মধ্যে শেষ হয়ে যায় ব্যাংকের টিকিট। ফলে লাইনে দাড়িয়ে থাকা লোকজন একটি টিকিটের আশায় ছুুটে যান এক ব্যাংক থেকে অন্য ব্যাংকে। এর পরেও অনেকে টিকিট না পেয়ে হতাশ হয়ে ফিরে যান।  গতকাল মঙ্গলবার অগ্রণী, কৃষি ও পূবালী ব্যাংকে গিয়ে দেখা গেছে দীর্ঘ লাইন। প্রধান সড়কের পার্শ্বে ব্যাংক গুলো হওয়ায় দীর্ঘ লাইনের কারণে শহরে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। ব্যাংক গুলোতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখা হয়েছে পুলিশ। সদর উপজেলার পঞ্চপুকুর পাড়ার মোরাদ আলী জানান জেলা শহররে দুটি ব্যাংকে গিয়েও কাঙ্খিত টিকিট পাইনি। বাধ্য হয়ে স্টেডিয়ামে আসলাম। এখানে জানানো হলো এখান থেকে বিক্রি হবে না। এখন আমরা কি করবো, উপায় নেই। জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আরিফ হোসেন মুন জানান বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচটি এই অঞ্চলে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। মানুষজন একটি টিকিটের জন্য চারিদিকে ইতিমতো ছুটাছুটি করছেন। বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কান দল এখন অবস্থান করছে রংপুরস্থ “নথ ভিউ” হোটেলে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ