ঢাকা,বৃহস্পতিবার 15 November 2018, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

পাবনায় নারী সাংবাদিককে কুপিয়ে হত্যা করল সন্ত্রাসীরা

সুবর্ণা নদী

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:

পাবনা থেকে প্রকাশিত ‘দৈনিক জাগ্রত বাংলা’র সম্পাদক ও প্রকাশক সুবর্ণা নদীকে (৩০) কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে জেলা শহরের রাধানগর আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে নিজ ভাড়া বাসার সামনে এই ঘটনা ঘটে। সুবর্ণা নদী বেসরকারি টেলিভিশন আনন্দ টিভির পাবনা প্রতিনিধি হিসেবেও কাজ করতেন।  

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস জানান, রাত সাড়ে ১০টার দিকে সুবর্ণার বাসার কলিং বেল টিপে কয়েকজন দুর্বৃত্ত। এ সময় সুবর্ণা গেট খোলার সঙ্গে সঙ্গে তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। তাঁর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এসে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘ধারণা করা হচ্ছে পূর্ব বিরোধের জের ধরে তাঁকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। তবে আমাদের পুলিশের বিভিন্ন ইউনিট কাজ করছেন প্রকৃত ঘটনা উদ্ধারের জন্য।'

সুবর্ণা নদী একদন্ত ইউনিয়নের বাড়ইপাড়া গ্রামের মৃত আয়েব আলীর মেয়ে। তার পাঁচ থেকে ছয় বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। সম্প্রতি স্বামীর সঙ্গে তার বিচ্ছেদ হয়। এ নিয়ে আদালতে একটি মামলাও চলছে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে। 

সুবর্ণা হত্যার ঘটনায় পাবনায় কর্মরত সাংবাদিকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

পাবনা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী বাবলা বলেন, “প্রত্যক্ষদর্শীরা আমাদের জানিয়েছেন, ১০/১২ জন সন্ত্রাসী কয়েকটি মোটর সাইকেলে এসে তাকে কুপিয়ে দ্রুতবেগে চলে যায়। যারা এই ঘটনার সাথে জড়িত, তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।”

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি আওয়াল কবির জয় সাংবাদিক সুবর্ণা খুনের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। খুনিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিও জানিয়েছেন তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ