ঢাকা, বুধবার 29 August 2018, ১৪ ভাদ্র ১৪২৫, ১৭ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নাটোরের লালপুর-বড়াইগ্রাম-ঈশ্বরদীর গ্রামে গ্রামে শোকের মাতম

নাটোর সংবাদদাতা: নাটোরের বড়াইগ্রাম ও লালপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী কদিমচিলান এলাকায় ভয়াবহ বাস দুর্ঘটনায় নিহত ১৫ জনের পরিবারে চলছে শোকের মাতম। জানাজা আর দাফনের সময় উপস্থিত স্বজন ও জনতার আহাজারী আর কান্নায় ভারি হয়ে ওঠে এলাকার আকাশ বাতাস।
ইতোমধ্যে ১৪টি লাশের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। এর মধ্যে বড়াইগ্রামের গোপালপুর গ্রামের মিন্টু রোজারিও’র স্ত্রী আদরী বিশ্বাস (৩৫), তার ছেলে প্রত্যয় বিশ্বাস (১২) ও ১০ মাস বয়সের শিশু মেয়ে স্বপ্না বিশ্বাসকে খ্রিষ্টান ধর্মমতে ঈশ্বরদী উপজেলার মুলাডুলি শ্মসানপাড়ায় কবর দেয়া হয়েছে। রোজুফা বেগম (৪৫) ও শেফালী বেগম (৪৬) কে বড়াইগ্রাম উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামে, লবেজান বেগমকে (৬৫) জামাইদিঘা গ্রামে দাফন করা হয়েছে। এছাড়া নিহত রোকন উদ্দিন (২২)  কে টাঙ্গাইলের গোপালপুরে, শাপলা খাতুন (২২) ও তার শিশু মেয়ে সুমাইয়া খাতুন (১১ মাস) কে ঈশ্বরদীর মীর কামারী গ্রামে, আব্দুস সোবহান (৭৫) কে ঈশ্বরদীর পাকশী গ্রামে, জহুরা খাতুনকে (৬০) একই উপজেলার নিকরহাটা গ্রামে দাফন করা হয়েছে।
অপরদিকে, দুর্ঘটনায় নিহত লেগুনার চালক আব্দুর রহিম (২২), হেলপার রাজার (২০) লাশ উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় তার গ্রামের বাড়ি নীলফামারী জেলার সৈয়দপুরের চীনা মসজিদ গ্রামে এবং আবু রায়হানের (৫০) লাশ সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া থানার বাগমারা চকপাড়া গ্রামে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।
দুর্ঘটনার ঘটনায় সাতজনের নামে মামলা দায়ের
শনিবারের সড়ক দুর্ঘটনায় বনপাড়া হাইওয়ে থানার এএসআই মো. ইউসুফ আলী বাদী হয়ে লালপুর থানায়  রোববার সকালে একটি মামলা দায়ের করেছেন। বনপাড়া হাইওয়ে থানার ওসি জিএম শামসুন নুর জানান, মামলায় হিউম্যান হলারের (লেগুনা) মালিক উপজেলার বনপাড়া পৌরসভার কালিকাপুর গ্রামের ইয়াদ আলীর ছেলে শাহাদৎ হোসেন,  লেগুনার চালক নীলফামারীর সৈয়দপুরের চিনা মসজিদ গ্রামের মৃত মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে আব্দুর রহিম (২২), হেলপার একই গ্রামের শাহাজাদা মিয়ার ছেলে রাজা (২০), বনপাড়া লেগুনা মালিক সমিতির সভাপতি বনপাড়া পৌরসভার মহিষভাঙ্গা গ্রামের মৃত জয়েন উদ্দিন মোল্লার ছেলে জাভেদ মোল্লা (৫০) ও সেক্রেটারী লালপুর উপজেলার গোধড়া গ্রামের মৃত বেলাল হোসেন প্রামাণিকের ছেলে জাকির হোসেন (৩৫), বাস মালিক (অজ্ঞাত) ও বাসের চালক (অজ্ঞাত) কে আসামী করা হয়েছে। প্রসঙ্গত,  লেগুনার চালক ও হেলপার দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।
১৪টি লাশ হস্তান্তর
বনপাড়া হাইওয়ে থানার ওসি জিএম শামসুন নুর জানিয়েছেন, নিহতদের প্রায় সকলেই বড়াইগ্রাম ও পাশের ঈশ^রদী উপজেলার অধিবাসী হওয়ায় নিহতের স্বজনদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে বনপাড়া হাইওয়ে  পুলিশ ফাঁড়ি  থেকে লাশ গুলো হস্তান্তর করা হয়েছে। শনিবার রাতেই ১৪ টি লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। অপরদিকে, নিহত একজন পুরুষ মানুষের পরিচয় নিশ্চিত হতে না পারায় তার লাশটি নাটোর আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলামের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
তদন্ত কমিটির কাজ শুরু
নাটোরের জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন এই প্রতিবেদককে জানিয়েছেন, ঘটনার পরপরই  জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইদুজ্জামানকে প্রধান এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বড়াইগ্রাম সার্কেল) হারুন অর রশিদ ও বিআরটিএ’র সহকারী পরিচালক সাইদুর রহমানকে নিয়ে গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি ইতোমধ্যেই তদন্ত কাজ শুরু করেছে।
অপরদিকে, হাইওয়ে পুলিশের এএসপি মো. শহীদুল্লাহর নেতৃত্বে পৃথক তদন্ত টিম শনিবার সন্ধ্যা থেকেই পৃথকভাবে কাজ শুরু করেছে বলে হাইওয়ে পুলিশের বগুড়া জোনের পুলিশ সুপার  মোস্তাফিজুর রহমান জানান।
বড়াইগ্রামে দুর্ঘটনা বিষয়ক গণসচেতনতামূলক সভা
নাটোরের বড়াইগ্রামে বনপাড়া বাজারে রবিবার সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে জনসচেতনামূলক গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইউএনও আনোয়ার পারভেজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আ’লীগ সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডঃ আবুল কালাম আজাদ, জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন, পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার ও বগুড়া অঞ্চল হাইওয়ের পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান। অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন বনপাড়া পৌর মেয়র কে.এম. জাকির হোসেন। শনিবার পরপর দু’টি সড়ক দুর্ঘটনার প্রেক্ষিতে বনপাড়ায় দুর্ঘটনা প্রতিরোধে জনসচেতনামূলক গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। গণসমাবেশে লেগুনা, থ্রিহুইলার, ব্যাটারী চালিত অটোরিকশা, লাইসেন্সবিহীন যানবাহন মহসড়কে চলাচল নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়।
মহাসড়কে হাইওয়ে পুলিশের অভিযান-
এদিকে, মহাসড়কে অবৈধ থ্রি-হুইলার, হিউম্যান হলারসহ ভুটভুটি চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে হাইওয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে মাইকিং করা হয়েছে।
একই সঙ্গে বনপাড়া হাইওয়ে থানা ও ঝলমলিয়া হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির পক্ষ থেকে মহাসড়কে এসব অবৈধ যানবাহনের বিরুদ্ধে ব্যাপক অভিযান চালানো হচ্ছে।  রোববার সকাল থেকে শুধুমাত্র বনপাড়া হাইওয়ে থানায় শতাধিক সিএনজি চালিত থ্রি-হুইলার, হিউম্যান হলার ভুটভুটি আটক করা হয়েছে। এছাড়া নাটোর শহরের দত্তপাড়া এলাকায় এসব যানবাহন আটক করে মহাসড়কের পাশের পুকুরে ফেলে দিতে দেখা গেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ