ঢাকা, বৃহস্পতিবার 30 August 2018, ১৫ ভাদ্র ১৪২৫, ১৮ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রেসিডেন্সিয়াল ল্যাবরেটরী কলেজের ছাত্রী হোস্টেলে সন্ত্রাসী হামলার বিচার দাবি

রাজধানীর খিলক্ষেত নিকুঞ্জতে রেসিডেন্সিয়াল ল্যাবরেটরি কলেজের ছাত্রী হোস্টেলে সন্ত্রাসী হামলা ও মালামাল লুটের ঘটনার প্রতিবাদ ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে হোস্টেলের সামনে শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : রেসিডেন্সিয়াল ল্যাবরেটরী কলেজের ছাত্রী হোস্টেলে সন্ত্রাসী হামলার বিচার দাবি। গতকাল বুধবার দুপুরে রেসিডেন্সিয়াল ল্যাবরেটরী কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীরা আয়োজিত এক মানববন্ধনে এই দাবি জানায়। 
মানববন্ধনে কলেজের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান সুমন বলেন, রেসিডেন্সিয়াল ল্যাবরেটরী কলেজের ছাত্রী হোস্টেলে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় গত মঙ্গলবার খিলক্ষেত থানায় মামলা করা হয়েছে। মামলার নম্বর ৯৯/১৮। মামলায় সৈয়দ জাফর হাসনাইন জায়েদী, মোহাম্মদ আলী ও সৈয়দা কাওসার ইয়াসমিন জায়েদীকে আসামী করা হয়।
তিনি বলেন, পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে রেসিডেন্সিয়াল ল্যাবরেটরী কলেজ ছুটি হলে হোস্টেলের সকল ছাত্রী ঐ দিনই  বাড়ি চলে যায় এবং গত ১৫ই আগষ্ট ২০১৮ তারিখে হোস্টেল সুপার মহিলা ও দারোয়ান (মহিলা) ঈদের ছুটিতে বাড়ি চলে যায়। ছুটিকালিন সময়ের জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষ ছাত্রী হোস্টেলের নিরাপত্তার স্বার্থে একজন পুরুষ দারোয়ান ছাবেদ আলীকে নিযুক্ত করেন।
গত ২০ আগষ্ট আনুমানিক রাত ৯টার সময় রেসিডেন্সিয়াল ল্যাবরেটরী কলেজের ছাত্রী হোস্টেলে (বাড়ী নং-০৩, রোড নং-০৬, নিকুঞ্জ-০২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯) বাড়ির মালিক সৈয়দ জাফর হাসনাইন জায়েদির নির্দেশে তাহার কথিত ভাগিনা মোহাম্মদ আলী প্রায় ৩০-৪০ জন সন্ত্রাসী নিয়ে এসে দায়িত্বরত দারোয়ানকে ছাবেদ আলী বাড়ির মালিকের পরিচয় দিয়ে গেইট খুলতে বলে। দারোয়ান গেইট খুলতেই মালিকের ভাগিনা মোহাম্মদ আলী সন্ত্রাসীদের নিয়ে ভিতরে ঢুকেই দারোয়ানকে মারধর করে এবং তাহার মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে তাহাকে জিম্মি করে প্রায় ৪-৫ ঘন্টা সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করে ছাত্রীদের মূল্যবান কাগজপত্র, মূলসনদপত্র, জামা-কাপড়, স্বর্ণালংকার, কম্পিউটার, টিভি, ফ্রিজ, পাঠ্য-পুস্তক, স্টিলেরখাট, চেয়ার, পড়ার টেবিল, বুক সেল্ফ, তোষক, বালিশ, মশারি, বিছানারচাদর, কম্বল, কাঁথা, বৈদ্যুতিক সিলিংপাখা, ছাত্রীদের ব্যক্তিগত বৈদ্যুতিক টেবিলপাখা, ডাইনিং টেবিল ও তৈজসপত্রসহ অন্যান্য মূল্যবান সরঞ্জামাদি ৬-৭টি ট্রাক বোঝাই করে নিয়ে যায়। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ