ঢাকা, বৃহস্পতিবার 30 August 2018, ১৫ ভাদ্র ১৪২৫, ১৮ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নাটোরে পারিবারিক কলহে দুইজনকে কুপিয়ে জখম

নাটোর সংবাদদাতা: পারিবারিক কলহের জের ধরে আমিরুল ইসলাম (৪৫) নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে জখমের অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশির বিরুদ্ধে। অপরদিকে স্ত্রীর সাথে বিবাধের জের ধরে জামাই মহরমকে (৩০) কুপিয়ে জখম করেছে শশুর বাড়ির লোকজন। রোববার দুপুর তিনটার দিকে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার মশিন্দা ইউনিয়নের শিকারপুর গ্রামে ও পৌর সদরের আনন্দ নগর মহল্লায় ওই ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, আহত আমিরুল ইসলাম খসরু শিকারপুর গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে। প্রতিবেশি আব্দুল করিম, আব্দুল হান্নান ও তাজু প্রামাণিকের সাথে বিরোধ চলে আসছিল। সর্বশেষ রোববার দুপুরে প্রতিপক্ষের লোকজন বাঁশ বহনের সময় আমিরুলের বাড়ি আঙ্গিনার বেড়া ভেঙ্গে ফেলে। এঘটনায় আমিরুল প্রতিবাদ করলে প্রতিপক্ষরা তার ওপর অর্তকিত হামলা চালায়। এসময় আমিরুলকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করা হয়। আমিরুলের চিৎকারে প্রতিবেশিরা তাকে উদ্ধার করে গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। অপরদিকে  পৌর সদরের আনন্দ নগর মহল্লার ময়লালের ছেলে মহরমের সাথে একই মহল্লার খায়রুল ইসলামের মেয়ে খাদিজার (২৫) বিয়ে হয়। একপর্যায়ে মহরম তার স্ত্রী খাদিজাকে পারিবারিকভাবে শাসন করায় শশুর খায়রুল তার ছেলেদের নিয়ে জামাই বাড়িতে গিয়ে জামাই মহরমকে কুপিয়ে জখম করে। পরে প্রতিবেশিরা আহত মহরমকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সেলিম রেজা জানান, এ ব্যাপারে কোন পক্ষই থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ