ঢাকা, শুক্রবার 31 August 2018, ১৬ ভাদ্র ১৪২৫, ১৯ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কবি শাহিদ উল ইসলাম এর ৫০ তম জন্মবার্ষিকী

‘জয় হোক কবি ও কবিতার’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে গত ১৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটায় জলকণা সাহিত্য পরিষদের আয়োজনে সাপ্তাহিক এশিয়া বার্তার হলরুমে কবি শাহিদ উল ইসলাম-এর পঞ্চাশতম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এক মনোজ্ঞ সংবর্ধনা ও কবিতা উৎসবের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করেন উত্তরাধুনিক কবিতার পথিকৃৎ কবি ফাহিম ফিরোজ। বিশেষ অতিথি ছিলেন- কথা-সাহিত্যিক কবি আব্দুল মুহিত মৃধা দুলু, বিশিষ্ট অভিনেতা কবি জামিলুর রহমান শাখা, কবি ফজলুল হক, বিপ্লবী কবি দালান জাহান ও তরুণ কবি সুমন আমীন। সভার সভাপতিত্ব করেন জলকণার সম্পাদক কবি রাজু ইসলাম।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন- মহাকবি কায়কোবাদ সাহিত্য সংঘের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক কবি জুয়েল মাহমুদ কাননজী, স্থানীয় কবি হাসান মতিউর রহমান তোতা, কবি বাবুল হোসেন ভুলু, কবি নাসির উদ্দিন, কবি প্রবীর পাল, সংগঠক ও রাজনীতিবীদ হা.ম.আ. ওয়াদুদ, কবি ও অভিনয় শিল্পী নাজমা আক্তার খুকুমনি, তরুণ কবিদের মধ্যে কবি অনন্ত কুমার দিগন্ত, কবি ও সংগঠক রাইসুল ইসলাম, কবি মুসাদ্দেক হাবিব মুন্না, কবি মোহাম্মদ ফয়সাল, কবি নিলয় রফিক, কবি আহরাফ রবিন, কবি সাহেরা আক্তার রুমা, কবি জয় সাহা, এশিয়া বার্তার ও স্থানীয় সাংবাদিকগণসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট নৃত্যশিল্পী সায়িরা খুশনুদ নওফা।

অনুষ্ঠানে সুললিত কণ্ঠে সংগীত পরিবেশন করেন রেডিও টেলিভিশনের নিয়মিত শিল্পী আবুবকর সিদ্দিক, মো: রাইসুল ইসলাম, সাহেরা আক্তার রুমা ও সায়িরা খুশনুদ নওফা।

প্রধান অতিথি কবি ফাহিম ফিরোজ তার বক্তব্যে বলেন- ‘কবি শাহিদ উল ইসলাম একজন দায়ীত্বশীল কবি এবং সময়ের সুপ্রতিষ্ঠিত, কারণ তার কবিতায় দেশ, জাতি, মাটি ও মানুষের কথা উঠে এসেছে সাবলীল ভঙিমায়, উঠে এসেছে উত্তরাধুনিক উপসর্গসহ সমাজের নানা বৈকল্যের চিত্র। তিনি তার দীর্ঘায়ু কামনা করেন। সভাপতির বক্তব্যে কবি রাজু ইসলাম বলেন- ‘যেহেতু কবির কবিতায় সমকালের দুঃখ দুর্দশা প্রেম-বিরহ ও সমাজ সচেতনতার কথা, নির্যাতিত-নিপীড়িতের কথা প্রাঞ্জল ও উপমা সমৃদ্ধভাবে উঠে এসেছে তাই তিনি মানবতার কবি। মানবতার এমন কবি বর্তমান এই ক্ষয়িষ্ণু সময়ে বড় বেশী প্রয়োজন।’

অনুষ্ঠানে সকলেই নাতিদীর্ঘ আলোচনা ও কবিকে নিবেদিত কবিতা পাঠ করেন। পুরো অনুষ্ঠানটি সংগীত ও কবিতার মাধ্যমে সঞ্চালনা করেন কবি সুজিত হালদার, কবি গোলাম আবুল হোসেন ও কবি ও ছড়াকার শাহীন রায়হান।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে কবিকে বিশেষ সম্মাননা স্মারক ক্রেস্ট প্রদান করা হয় এবং কবির উপর রচিত বিশেষ স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন, বিতরণ ও জন্মদিনের কেক কেটে শুভেচ্ছা জানানোর পর সভাপতির সমাপনী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।                  -শাহিন রায়হান

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ