ঢাকা, শুক্রবার 31 August 2018, ১৬ ভাদ্র ১৪২৫, ১৯ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ঘাতকদের আটকের দাবিতে মানববন্ধন ও পথসভায় ৭ দিনের অল্টিমেটাম

সাভার সংবাদদাতা :সাভারে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় শিক্ষার্থী মারুফ খান হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও পথসভা করেছে স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণি পেশার কয়েক হাজার মানুষ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা আরিচা মহাসড়কের সাভার উপজেলা পরিষদের মূল ফটকের সামনে এই কর্মসূচী পালিত হয়। কর্মসূচীতে বক্তারা ঘাতক ও তাদের পৃষ্ঠপোষকদের গ্রেপ্তার এবং অবৈধ হাটবাজার থেকে আয়ের উৎস্য বন্ধের দাবি জানান। সভার শুরুতে ইভটিজিংয়ের শিকার ঢাকা কমার্স কলেজের মেধাবী ছাত্রী কান্নাজড়িত কন্ঠে ওইদিনের মর্মস্পর্শী ঘটনার বর্ণনা করেন। পথসভায় বক্তারা বলেন, আগামী ৭ দিনের মধ্যে ঘাতক এবং তাদের পৃষ্ঠপোষকদের আইনের আওতায় আনা না হলে পরবর্তী যেকোনো পরিস্থিতির জন্য প্রশাসনকে দায়ী থাকতে হবে। কর্মসূচীতে একাত্মতা জানিয়ে এ্যাবাক স্কুল, প্যাপিরাস স্কুল, সাভার ক্যাডেট স্কুলসহ একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, শিক্ষক, শিক্ষিকা ও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার কয়েক হাজার মানুষ অংশ নেয়। 

মানববন্ধনে এসময় বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী আলীনূর রহমান খান সাজুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পথসভায় অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন, তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফখরুল আলম সমর, কৃষিবিদ ড. রফিকুল ইসলাম মোল্যা ঠান্ডু, মোহামেডান স্পটিং ক্লাবের পরিচালক রেজাউর রহমান সোহাগ, সাবেক সচিব আব্দুস সাত্তার, সাভার কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক জিএস মাকসুদুর রহমান খান, সাভার দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক সালাহউদ্দিন খান নঈম, বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়শনের (ক্র্যাব) সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান খান, সাভার প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি তুহিন খান, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক গোবিন্দ আচার্য্য, আশুলিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান নিপু, পৌর ছাত্রলীগ সভাপতি আতাউর রহমান অভি, নিহতের বাবা আতাউর রহমান খান আলমগীর, সাভার সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি আব্দুল কাদের তালুকদার, ছাত্র ইউনিয়ন নেত্রী কাজী রীতা, মহিলা পরিষদ নেত্রী নাসরিন প্রমুখ। 

প্রসঙ্গত, গত ঈদের আগের দিন ২১ আগস্ট বিকেলে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় সাভারের গেন্ডা বাসস্ট্যান্ডের অদূরে ঢাকা কমার্স কলেজ থেকে চলতি বছর কৃতিত্বের সঙ্গে উত্তীর্ণ হওয়া মেধাবী শিক্ষার্থী মারুফ খানকে ছুরিকাঘাতে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের বড়ভাই লুৎফর রহমান খান মানিক বাদি হয়ে থানায় ৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। একজনকে আটক করা হলেও মূল আসামী এখনো ধরাছোয়ার বাইরে রয়েছে।  

অন্যদিকে পাবনা জেলায় আনন্দ টিভির প্রতিনিধি সুবর্ণা আক্তার নদীকে হত্যা কান্ডের ঘটনায় আসামীদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবিতে সাভারের সিটি সেন্টারের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে আনন্দ টিভি পরিবারের সদস্যরা।

ধর্ষকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা : সাভারে এক মাদ্রাসা শিক্ষিকা (২৬) ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এঘটনায় ধর্ষণের শিকার ওই মাদ্রাসা শিক্ষিকাকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেরর ওয়ান ষ্টফ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে ধর্ষণের শিক্ষার ওই শিক্ষিকা গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে নিজের হাত কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটেছে সাভারের বিরুলিয়া ইউনিয়নের মৈস্তাপাড়া এলাকায় ।

পুলিশ জানায়, বিরুলিয়ার মৈস্তাপাড়া এলাকার মজিবর রহমানের মেয়েকে গত কয়েকদিন ধরে বিয়ের প্রভোলন দেখিয়ে ধর্ষণ করে আসছিলো সাভারের ইমান্দিপুর এলাকার রুবেল নামের এক যুবক। পরে ধর্ষণকারী যুবক ওই শিক্ষিকাকে বিয়ে করতে না চাওয়ায় বৃহস্পতিবার সকালে ওই শিক্ষিকা সাভার মডেল থানায় রুবেলকে প্রধান আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। পরে সকালে পুলিশ ওই শিক্ষিকাকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেরর ওয়ান ষ্টফ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করেছে। এদিকে ওই শিক্ষিকা ধর্ষণের অপমান সইতে না পেরে নিজের বাসায় বাম হাত কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। ধর্ষণের শিকার ওই মাদ্রাসা শিক্ষিকা বিরুলিয়া এলাকার একটি মহিলা মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করতো বলে জানা গেছে। এবিষয়ে সাভার মডেল থানার এস আই রুবেল হোসেন বলেন ধর্ষণকারী যুবককে আটক করার চেষ্টা চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ