ঢাকা, শনিবার 1 September 2018, ১৭ ভাদ্র ১৪২৫, ২০ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রেললাইন মেরামতে ইটের খোয়া?

সড়ক, কালভার্ট, ব্রিজ, সরকারি স্কুলভবন নির্মাণে সিমেন্ট, পাথর, বিটুমিন, লোহার রড কম দিয়ে বা একদমই না দিয়ে শুধু বালু, মাটি, বাঁশ, খড়বিচালি ইত্যাদি দিয়ে ঢালাই দেবার খবরে ইতোমধ্যে মশহুর হয়ে আছেন আমাদের নির্মাণকাজের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা। এসব খবর প্রিন্ট মিডিয়ায় যেমন ছাপা হয়েছে, তেমনই ইলেকট্রনিক মিডিয়ায়ও এসেছে একাধিকবার। বাকি ছিল রেলপথ নির্মাণ বা মেরামতে এমন  অনিয়মের খবর পেতে। দৈনিক সংগ্রামের খুলনা অফিস সেই শূন্যস্থান পূরণ করলো পাথরের পরিবর্তে নিম্নমানের ইটের খোয়া দিয়ে রেললাইন মেরামতের খবর দিয়ে। রেললাইন দিয়ে চলে হাজার হাজার যাত্রী নিয়ে ট্রেন। ট্রেনের ওজন কয়েক হাজার টন। অজগরের ন্যায় ছুটে চলা বিরাটকায় যানটির ভার বহনে রেললাইন হতে হয় যথেষ্ট মজবুত। সেজন্য রেলওয়েতে দেয়া হয় শক্ত পাথর যাতে রেলের স্লিপার সরে না যেতে পারে। কারণ রেল দুর্ঘটনা হলে ব্যাপক প্রাণহানিসহ বিরাট ক্ষয়ক্ষতি আশঙ্কা থাকে।
খুলনা থেকে ঢাকাসহ সারাদেশের রেলযোগাযোগ আছে। প্রতিদিন হাজার হাজার যাত্রী যাতায়াত করেন এ ট্রেনে। সড়ক যাতায়াত বিপজ্জনক হওয়ায় ট্রেনে দিনদিন যাত্রীসংখ্যা বাড়ছে। এমতাবস্থায় রেলওয়ের পাথরের প্যাকিং দুর্বল হয়ে পড়ায় এখন দেয়া হচ্ছে নিম্নমানের ইটের খোয়া, যা নিয়মবহির্ভূত এবং খুবই বিপজ্জনক বলে রেলের সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলরা জানিয়েছেন। বলা বাহুল্য, পাথরের পরিবর্তে নিম্নমানের ইটের খোয়া দিয়ে রেল স্লিপারের প্যাকিং দেয়াতে মারাত্মক দুর্ঘটনার আশঙ্কা থাকে। তবে রেলওয়েরই কেউ কেউ লাইনে ইটের খোয়া দেয়াতে তেমন সমস্যা হবে না বলে জানান। এ ব্যাপারে খুলনার স্টেশনমাস্টার মানিকচন্দ্র সরকার জানান, রেললাইনে পাথর ব্যবহারের নিয়ম। অন্যকিছু ব্যবহার করা যায় না। খোয়া বা রাবিশ ব্যবহার করা হয়েছে কিনা তিনি জানেন না। তিনি বলেন, এটা দেখবার দায়িত্ব ইঞ্জিনিয়ারদের। অর্থাৎ সবার মধ্যেই যেন রেলওয়েতে ইটের খোয়া ব্যবহারের বিষয়টি এড়িয়ে যাবার প্রবণতা লক্ষণীয়।
দেশের যোগাযোগের অন্যতম এবং গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম ট্রেন। সড়কপথে দুর্ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় রেলপথেই এখন মানুষ যাতায়াত করছেন বেশি। শুধু দেশে নয় বিদেশেও ট্রেন এখন জনপ্রিয় বাহন। পৃথিবীর অনেকে দেশে ট্রেন এখন প্রায় প্লেনের গতিতে চলছে। মহানগরী ঢাকাতেও মেট্রোরেলের কাজ দ্রুত এগুচ্ছে। কিন্তু খুলনায় রেলওয়েতে পাথরের পরিবর্তে নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহারের খবরটি শুধু হতাশাব্যঞ্জকই নয়। জনপ্রিয় এবং অপেক্ষাকৃত আরামদায়ক পরিবহনব্যবস্থা রেলওয়ের বিরুদ্ধে কোনো ষড়যন্ত্র কিনা তা তলিয়ে দেখা হোক।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ