ঢাকা, শনিবার 1 September 2018, ১৭ ভাদ্র ১৪২৫, ২০ জিলহজ্ব ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের বিশেষ অভিযান

চট্টগ্রাম ব্যুরো: বন্দর নগরী চট্টগ্রামের খুলশী থানাধীন ফয়েজলেক মোটেল সিক্স স্বর্ণালীর ২য় ও ৩য় তলায় অভিযান পরিচালনা করে নারী পাচারকারী, পতিতা ও খদ্দের সহ ২৯ জনকে গ্রেফতার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।
গ্রেফতারকৃতরা হলো- ১। ইয়াছিন মামুন (২৮), পিতা-আবুল কালাম, মাতা-বিবি খাতুন, সাং-কাদরা, রুহুল আমিন মেম্বারের বাড়ি, থানা-সেনবাগ, জেলা-নোয়াখালী, বর্তমানে-সহকারী ম্যানেজার, মোটেল সিক্স স্বর্ণালী, ফয়েজলেক, থানা-খুলশী, জেলা-চট্টগ্রাম।পলাতক আসামীরা হলো-  ২। মোঃ আবুল হোসেন, পিতা-অজ্ঞাত, সাং-কানকরহাট, থানা-সেনবাগ, জেলা-নোয়াখালী, বর্তমানে-মালিক, মোটেল সিক্স স্বর্ণালী, ফয়েজলেক, থানা-খুলশী, জেলা-চট্টগ্রাম, ৩। ডাবলু বড়–য়া (৪২), পিতা-অজ্ঞাত, থানা ও জেলা-অজ্ঞাত, বর্তমানে-ম্যানেজার, মোটেল সিক্স স্বর্ণালী, ফয়েজলেক, থানা-খুলশী, জেলা-চট্টগ্রাম ৪। আনসার আলী (৫০), পিতা-অজ্ঞাত, থানা ও জেলা-অজ্ঞাত, বর্তমানে-ম্যানেজার, মোটেল সিক্স স্বর্ণালী, ফয়েজলেক, থানা-খুলশী, জেলা-চট্টগ্রাম, ৫। জসিম মিয়া (৪০), পিতা-অজ্ঞাত, থানা-সোনাইমুড়ি , জেলা-নোয়াখালী, বর্তমানে-সুপার ভাইজার, মোটেল সিক্স স্বর্ণালী, ফয়েজলেক, থানা-খুলশী, জেলা-চট্টগ্রাম, ৬। সাজু, ৭। শাহীন, ৮। সোহেল, বর্তমানে-উভয়ে হোটেল ষ্টাফ, মোটেল সিক্স স্বর্ণালী, ফয়েজলেক, থানা-খুলশী, জেলা-চট্টগ্রাম।আটককৃত পতিতারা হলো ঃ   শিল্পী আক্তার (১৮), মুন্নি বেগম (২৫) সাথী আক্তার (১৮),  শাপলা রাংসা (১৯) , শাহেনা বেগম (৩২),  রোকসানা (১৮),  সুমি আক্তার (১৮),  মর্জিনা বেগম (১৮),   জেসমিন আক্তার (২০),  রিয়া আক্তার (২০),  ফাতেমা বেগম (২০),   নুসরাত জাহান (২০),  নিপা বেগম (২৫) ।  আটককৃত খদ্দের ঃ   মোঃ রুবেল (২৮),   মোঃ আসিফ (২০),  মনির উদ্দিন রুবেল (২০),   মোঃ সেলিম (৩৮),  মোঃ আক্তার হোসেন (২৫),  মোঃ মুসলিম উদ্দিন (২৮),   মোঃ সুমন (৩০),  মোঃ রুবেল (২৮),  মোঃ জাহিদ (২৮),  মোঃ সিদ্দিক (৩৫),   মোঃ সাদ্দাম হোসেন (২৬),   মোঃ সুজন (২১),  মোঃ রানা (২৪),   মোঃ মোক্তার আলম (২৮),   মোঃ সাদমান আবিদ (২১), ।
পুলিশ জানিয়েছে, ২৫ আগস্ট বিকালে  মহানগর গোয়েন্দা বিভাগের   পুলিশ   গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খুলশী থানাধীন ফয়েজলেক মোটেল সিক্স স্বর্ণালীর ২য় ও ৩য় তলায় অভিযান পরিচালনা করে নারী পাচারকারী, পতিতা ও খদ্দের সহ ২৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়।
ধৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে জানায় যে, তারা   পলাতক আসামীদের নির্দেশে ও সহায়তায় নারী পতিতা সংগ্রহ করে অবৈধভাবে হোটেলের বিভিন্ন কক্ষে রেখে নারী পাচার ও পতিতাবৃত্তির ব্যবসা করে আসছে।
গ্রেফতারকৃত ও পলাতক আসামীদের বিরুদ্ধে খুলশী থানায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ